VDO: দোকানে গাড়ির ধাক্কা! উদ্ভ্রান্তের মতো স্ত্রী’কে খোঁজ

VDO: দোকানে গাড়ির ধাক্কা! উদ্ভ্রান্তের মতো স্ত্রী’কে খোঁজ

দোকানের ভিতরে স্ত্রী (সম্ভবত স্ত্রী’ই হবেন) ছিলেন। তিনি বাইরে কোথাও গিয়েছিলেন স্বামী। দ্রুতগতিতে মার্সিডিজ গাড়িটা ওই দোকানে ধাক্কা মারতেই ‘পড়ি কি মরি’ করে ছুটে আসেন। দোকানের ভেঙে পড়া জিনিসপত্র ঠেলেই প্রায় শুয়ে পড়ে গাড়ির নীচে খুঁজতে থাকেন স্ত্রী’কে। কিন্তু খুঁজে পাননি। এদিক-ওদিক চেয়ে ফের খুঁজতে শুরু করেন। তখনও দেখতে না পেয়ে উদ্ভ্রান্তের মতো গাড়ির নীচে ফের স্ত্রী’র খোঁজ করতে থাকেন। সেখানেও পাননি। তারইমধ্যে দোকানের ভিতর থেকে সম্ভবত স্ত্রী’র ডাক শুনতে পান। সেই ডাক শুনে দোকানের ভিতরের দিকে তাকান ওই ব্যক্তি। হাত ধরে স্ত্রী’কে দোকান থেকে বের করে আনেন। ধরে-ধরে স্ত্রী’কে দোকানের বাইরে নিয়ে আসেন। তারপর দু’জনে একে অপরকে জড়িয়ে দাঁড়িয়ে থাকেন। আর ঠিক কী হয়েছে, সম্ভবত সেটা বোঝার চেষ্টা করেন।

আর সেই ভিডিয়ো দেখে আবেগে ভেসে গিয়েছেন নেটিজেনরা। দিল্লির রাজপুর রোডের ভয়ংকর দুর্ঘটনার মধ্যেই স্বামী ও স্ত্রী’র ভালোবাসায় তাঁরা অভিভূত হয়ে গিয়েছেন। এক নেটিজেন বলেন, ‘নিজের স্ত্রী’র জন্য হলুদ জামা পরা ব্যক্তিটি কতটা ব্যাকুল হয়ে পড়েছেন, তা দেখে মনটা ভালো হয়ে গিয়েছে। স্ত্রী সুস্থ ও সবল আছেন দেখে ওঁনার যে অনুভূতিটা হয়েছে, তা ভাবনারও ঊর্ধ্বে।’

তাঁদের কিছু না হলেও ওই ঘটনায় ছ’জন আহত হয়েছেন। দিল্লি পুলিশের তরফে জানানো হয়েছে, গত রবিবার দিল্লির রাজপুর রোডে সেই ঘটনা ঘটেছে। একটি মার্সিডিজ গাড়ি এসে ওই দোকানে ধাক্কা মারে। গাড়িটি পরাগ মইনি নামে এক ব্যক্তির নামে নথিভুক্ত আছে। ইতিমধ্যে ওই গাড়িটিকে বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে। প্রাথমিক তদন্তে জানা গিয়েছে যে মার্সিডিজ গাড়ির চালক এবং তাঁর স্ত্রী উত্তর দিল্লির জনপ্রিয় কচুরি দোকানে খেতে আসছিলেন। সেইসময় দুর্ঘটনা ঘটেছে। দুর্ঘটনায় ছ’জন আহত হয়েছেন। তাঁদের হাসপাতালে ভরতি করা হয়েছে।

প্রাথমিকভাবে পুলিশের হাতে যে মেডিক্যাল রিপোর্ট এসেছে, তাতে গাড়ির চালক মদ্যপান করে ছিলেন না। মদ্যপানের কোনও প্রমাণ মেলেনি। তবে তদন্তের জন্য তাঁর রক্তের নমুনা রেখে দেওয়া হয়েছে। ঠিক কী কারণে ওই দুর্ঘটনা ঘটেছে, সে বিষয়ে আপাতত পুলিশের তরফে সরকারিভাবে জানানো হয়নি।

India Offbeat