বাবার থেকে চাবি চুরি করে অ্যাম্বুল্যান্স চালাতে গিয়ে নদীতে পড়ে মৃত্যু এক যুবকের

বাবার থেকে চাবি চুরি করে অ্যাম্বুল্যান্স চালাতে গিয়ে নদীতে পড়ে মৃত্যু এক যুবকের

জলঙ্গি নদীতে অ্যাম্বুল্যান্স পড়ে মৃত্যু হল এক যুবকের। রবিবার, ইংরেজি নববর্ষের রাতে এই ঘটনা ঘটেছে নদিয়ার কৃষ্ণনগর ঘূর্ণি এলাকার বক্সিপাড়া লেনে।মৃতের নাম রাজ হালদার (২০)।

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে, ঘূর্ণির বক্সিপাড়া লেনের বাসিন্দা নারায়ণ হালদার ভাড়ার গাড়ি চালান। কৃষ্ণনগরের একটি স্থানীয় স্বেচ্ছাসেবী সংস্থার মালিকানাধীন ওই অ্যাম্বুল্যান্সটিতে করে সোমবার ভোরে কৃষ্ণনগর থেকে কলকাতায় রোগী নিয়ে যাওয়ার কথা ছিল তাঁর। সেই মতো নারায়ণ তাঁর বাড়ির সামনে দাঁড় করিয়ে রেখেছিলেন অ্যাম্বুল্যান্সটি। তাঁর পরিবার সূত্রে জানা গিয়েছে, নারায়ণ ঘুমিয়ে পড়লে তাঁর ছেলে রাজ হালদার (২০) চাবি চুরি করে অ্যাম্বুলেন্সের ভিতরে ঢোকেন। সঙ্গে ছিলেন তীর্থরাজ বিশ্বাস নামে রাজের এক বন্ধুও। কিন্তু গাড়িতে ঢোকার পর আচমকাই অ্যাম্বুল্যান্সটি পিছন দিকে গড়াতে শুরু করে। ঘটনার আকস্মিকতায় তীর্থরাজ অ্যাম্বুল্যান্স থেকে ঝাঁপ দেন এবং তিনি বেঁচে যান। এর পর অ্যাম্বুল্যান্সটি গড়াতে গড়াতে জলঙ্গী নদীতে পড়ে তলিয়ে যায়। অ্যাম্বুল্যান্সের মধ্যেই আটকে পড়েন রাজ। ঘটনার কিছু ক্ষণের মধ্যেই স্থানীয়রা ঘটনাস্থলে পৌঁছে রাজকে উদ্ধারের চেষ্টা করেন। কিন্তু অ্যাম্বুল্যান্সের দরজা বন্ধ থাকায় তাঁকে বার করা সম্ভব হয়নি। সকালে পুলিশ এবং দমকল এসে অ্যাম্বুল্যান্স-সহ রাজের মৃতদেহ উদ্ধার করে।এ নিয়ে তদন্তের দাবি তুলেছে রাজের পরিবার। কৃষ্ণনগর পুলিশ জেলার সুপার ঈশানী পাল জানিয়েছেন, ওই ঘটনার তদন্ত শুরু হয়েছে।

West Bengal