‘ভয়াবহ শীতকালের’ মুখোমুখি হতে পারে যুক্তরাষ্ট্র


করোনভাইরাসের কারণে যুক্তরাষ্ট্র ‘ভয়াবহ শীতকালে’র মুখোমুখি হতে পারে বলে জানিয়েছেন দেশটির সাবেক শীর্ষ স্বাস্থ্য কর্মকর্তা রিক ব্রাইট। গতকাল বৃহস্পতিবার যুক্তরাষ্ট্রের পার্লামেন্ট কংগ্রেসের শুনানিতে তিনি একথা জানান।
যুক্তরাষ্ট্রে ভ্যাকসিন তৈরির বিষয়ক সরকারি সংস্থা বায়োমেডিকেল অ্যাডভান্সড রিসার্চ অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট অথরিটির পরিচালক ছিলেন রিক ব্রাইট। কিন্তু করোনা নিয়ে সরকারের অবহেলার প্রতিবাদ করায় গত মাসে তাকে পদ থেকে সরিয়ে দেওয়া হয়।
ব্রিক বলেন, ‘আমরা যদি বিজ্ঞানসম্মতভাবে এখনো করোনা বিস্তার রোধে উপযুক্ত সাড়া দিতে ব্যর্থ হই, তবে আমার আশঙ্কা, মহামারি আরও প্রকট আকার ধারণ করবে এবং দীর্ঘায়িত হবে।’
তিনি বলেন, ‘সঠিক পরিকল্পনা না নেওয়া হলে ২০২০ সালে আধুনিক ইতিহাসে সবচেয়ে “অন্ধকারতম শীতকাল” দেখতে হবে যুক্তরাষ্ট্রকে।’
দেশটির পার্লামেন্টের নিম্নকক্ষ প্রতিনিধি পরিষদের স্বাস্থ্য বিষয়ক উপকমিটির শুনানিতে রিক ব্রাইট বলেন, ‘করোনার প্রাদুর্ভাবের প্রথমদিকে সরকার নিষ্ক্রিয় থাকার কারণে যুক্তরাষ্ট্রে অনেক প্রাণহানির শিকার হয়েছে।’
রিক জানান, তিনি জানুয়ারিতেই করোনা বিস্তার ঠেকাতে মাস্কসহ মেডিকেল সরঞ্জামের স্বল্পতার কথা জানিয়েছিলেন। বিষয়টি তিনি সরকারের সর্বোচ্চ পর্যায়ে তুলেছিলেন। কিন্তু তাতে কোনো সাড়া পাননি। উল্টো তাকে হতাশ হতে হয়েছে।
লকডাউন শিথিলের প্রতি ইঙ্গিত করে এই ভ্যাকসিন বিশেষজ্ঞ শুনানিতে আরও বলেন, ‘করোনার বিরুদ্ধে লড়াইয়ে যুক্তরাষ্ট্রের “সুযোগের দরজা” বন্ধ করে দেওয়া হচ্ছে।’
করোনায় বিশ্বের মধ্যে সবচেয়ে বেশি আক্রান্ত ও মৃতের দিক দিয়ে এগিয়ে আছে যুক্তরাষ্ট্র। পরিসংখ্যানভিত্তিক ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডোমিটারের তথ্য অনুযায়ী, এখন পর্যন্ত দেশটিতে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ১৪ লাখ ৫৭ হাজার ৫৯৩ জন। মারা গেছেন ৮৬ হাজার ৯১২ জন। আর সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ৩ লাখ ১৮ হাজার ২৭ জন।
Loading...

No comments

Powered by Blogger.