হাসপাতালের মহিলা সাফাই কর্মীকে মারধোর করার অভিযোগে গ্রেফতার ৩ জন


হাসপাতালের মহিলা সাফাই কর্মীকে মারধোর করার অভিযোগে গ্রেফতার ৩ জন 


হাসপাতালে মহিলা সাফাই কর্মীকে বেধড়ক মারধোর করার পাশাপাশি ঘরের জিনিসপত্র ভাংচুর চালানোর অভিযোগ উঠলো স্থানীয় তিন যুবকের বিরুদ্ধে। এই ঘটনায় এলাকায় ব্যাপার চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পরে। ঘটনাটি ঘটেছে উত্তর দিনাজপুর জেলার রায়গঞ্জ থানার মহারাজা এলাকায়। এই ঘটনায় ওই তিন যুবকের বিরুদ্ধে রায়গঞ্জ থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছে ওই মহিলা।



পরিবারসূত্রে জানা গিয়েছে, রায়গঞ্জ থানার মহারাজা এলাকায় বাসিন্দা কৃষ্ণাদাস রায়ের পাশের বাড়িতে বুলবুল রায়ের একটি বাঁশ চলে আসে কৃষ্ণাদেবীর বাড়িতে। ওই বাশঁটিকে কাঁটার জন্য  বারংবার বলা সত্যেও বুলবুল সেই বাঁশটিকে কাঁটছে না। বুধবার কৃষ্ণাদেবী রায়গঞ্জ হাসপাতালে সাফাই এর কাজ করে বাড়ি আসলে বুলবুলকে বাঁশটি কাঁটতে বলে। তখন বুলবুল কৃষ্ণাদেবীকে গালাগালি করলে দুজনের মধ্যে গন্ডগোল শুরু হয়। বুলবুল ও তার ভাই টুলটুল রায় ও বুলবুলের বন্ধু বিপ্লব রায় এরা তিনজন মিলে কৃষ্ণাদেবীকে বেধড়ক মারধোর করে ঘরের জিনিসপত্র ভাংচুর চালাই চলে অভিযোগ। অসুস্থ অবস্থায় স্থানীয় মানুষেরা কৃষ্ণাদেবীকে তড়িঘড়ি মহারাজা ব্লক প্রাথমিক স্বাস্থ্য কেন্দ্রে নিয়ে যাওয়া হয়। কৃষ্ণাদেবী অবস্থা অবনতি হওয়া চিকিৎসক তাকে রায়গঞ্জ মেডিকেল হাসপাতালে পাঠানোর নির্দেশ দেয়। এই ঘটনায় ওই তিনজনের বিরুদ্ধে রায়গঞ্জ থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন কৃষ্ণাদেবী। ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।

Loading...

No comments

Powered by Blogger.