গৃহশিক্ষকদের দায়িত্ব নেওয়া উচিত সরকারের!


শুধুমাত্র ৫০০ টাকা দিয়েই নিম্নবিত্ত বা মধ্যবিত্ত শ্রেণির মানুষদের পাশে দাঁড়ানো যাবে না।লকডাউনের মেয়াদ বেড়েছে মানুষদের করোনা থেকে বাঁচার কারণে, কিন্ত ততদিনে মানুষ অনাহারে থাকবে। ততদিনে হয়ত মৃত্যু মিছিল শুরু হয়ে যাবে দেশে। ফলে কেন্দ্র সরকারকে শুধুমাত্র ৫০০ টাকা নয় আর টাকা দিতে হবে নিম্নবিত্ত মধ্যবিত্ত শ্রেণির মানুষদের বাঁচাতে। এমনটাই দাবি করলেন বিশিষ্ট সমাজসেবী বিদ্যুৎ পোদ্দার।

তিনি বলেন, আজ তিনি অনাহারে থাকা গৃহশিক্ষকদের অবস্থার কথা পাঠকদের কাছে তুলে ধরবেন। তারা শিক্ষিত হয়ে পড়ুয়াদের বিদ্যা দান করে। কিন্ত লকডাউনের জন্য পড়তে আসতে পারছে না পড়ুয়ারা, তারাও পড়াতে যেতে পারছে না। ফলে কার্যত তারা এখন বেকার। হাতে টাকা নেই, প্রায় অনাহারেই দিন চলছে তাদের। এই ভয়াবহ অবস্থার মধ্যে যদি  কেন্দ্র সরকার তাদেরকে আর্থিক সাহায্য করত তাহলে খুবই উপকৃত হতেন তারা। গৃহ শিক্ষকরাই হলেন ভবিষ্যতের কাণ্ডারি। তারাই ইতিহাস তৈরি করতে সাহায্য করেন। ফলে এই কঠিন সময়ে ভারত সরকারের তাদের দায়িত্ব নেওয়া উচিত বলে মনে করেন বিদ্যুৎ পোদ্দার।



Loading...

No comments

Powered by Blogger.