অস্কারের ব্যাপারে অদ্ভুতুড়ে ৫ টি তথ্য


অস্কার বিজয়ী ছবিগুলোর মাঝে যেহেতু অনেক বিজ্ঞানভিত্তিক এবং বৈজ্ঞানিক কল্পকাহিনী জাতীয় উপাদান থেকে থাকে, সুতরাং বিজ্ঞানপ্রেমী মানুষেরাও অস্কারের প্রতি কৌতূহলী হয়ে থাকেন। শুধু তাই নয়, খোদ অস্কার অনুষ্ঠানের ব্যাপারে এমন কিছু তথ্য রয়েছে, যা অনুসন্ধিৎসু মানুষের চিন্তার খোরাক জোগাতে সক্ষম। অস্কারের অদ্ভুতুড়ে ইতিহাসের ব্যাপারে তেমনই কয়েকটি চমকপ্রদ তথ্য রইলো এখানে।
১) প্রথম অস্কার বিজয়ীর সন্দেহজনক পেশা
প্রথম অস্কার বিজয়ী হলেন এমিল জেনিংস, একজন মূক-চলচ্চিত্র অভিনেতা। তিনি “দ্যা লাস্ট কমান্ড” এবং “দ্যা ওয়ে অফ অল ফ্লেশ” নামের দুইটি চলচ্চিত্রের জন্য শ্রেষ্ঠ অভিনেতার পুরষ্কার পান। কিন্তু এর মাঝে অনেকগুলো কিন্তু রয়েছে। তার “দ্যা ওয়ে অফ অল ফ্লেশ” ছবিটির কোনো কপি এখন আর অবশিষ্ট নেই তাই ছবিটি পুরোপুরিভাবে হারিয়ে গেছে। সবচাইতে অদ্ভুত লাগে যে ব্যাপারটি, তা হলো অস্কার পাওয়ার পর জেনিংস এর পেশা। তিনি ছিলেন একজন জার্মান, এবং অস্কার পাওয়ার পর তিনি নাৎসি মনোভাবের বেশ কয়েকটি ছবিতে অভিনয় করেন।
২) অস্কার বিজয়ীরা দীর্ঘায়ু হয়ে থাকেন?
অস্কার বিজয়ের সাথে সাথে একটা স্বর্ণের স্ট্যাচুই শুধু নয়, সাথে সাথে এসব বিজয়ীদের আয়ুতেও যোগ হয় কয়েকটা বছর। ২০০১ সালে Annals of Internal Medicine জার্নালে প্রকাশিত এক গবেষণায় জানা যায়, একই সময়ের কম পরিচিত অভিনেতাদের চাইতে অস্কার বিজয়ীদের আয়ু ৩.৯ বছর বেশি হয়ে থাকে।ঠিক কি কারণে তাদের আয়ু বেশি হয়ে থাকে তা সঠিক জানা যায় না। এটা ধরে নেওয়া যায় যে অস্কার পাওয়ার কারণে সামাজিক মর্যাদা বাড়ার সাথে সাথেই বাড়ে আয়ু।
৩) অস্কার স্ট্যাচুর অদ্ভুত জীবন
২৪ ক্যারাট স্বর্ণে মোড়ানো, ৩৪ সেন্টিমিটার লম্বা এই অস্কার স্ট্যাচুর জায়গা কোথায় হবার কথা? নিশ্চয়ই সেই অস্কার বিজয়ীর শোকেসে? কিন্তু না। অদ্ভুত অদ্ভুত সব জায়গায় রাখা হয় তাকে। ২০১৩ সালে “সিলভার লাইনিংস প্লেবুক” ছবির জন্য শ্রেষ্ঠ অভিনেত্রীর পুরষ্কার পাওয়া জেনিফার লরেন্স নিজের বাড়িতে অস্কার স্ট্যাচুটি রাখতে অস্বস্তি বোধ করছিলেন। তাই তার মা ওটাকে নিয়ে নিজের পিয়ানোর ওপরে রেখে দেন। কেট উইন্সলেট, এমা থম্পসন এবং শন কনারি তাদের অস্কার স্ট্যাচু রেখে দেন নিজের বাথরুমে। সবচাইতে অদ্ভুত কাজটি করেন বোধহয় রাসেল ক্রো। “গ্ল্যাডিয়েটর” চলচ্চিত্রে পাওয়া অস্কার স্ট্যাচুটি তিনি প্রায়ই মুরগীর খোপে রেখে দেন।
৪) অস্কারের আজব গিফট ব্যাগ
অস্কার অনুষ্ঠানে যারা আসেন তাদেরকে দেওয়া হয় একটি গিফট ব্যাগ এবং তারা বেশ বিখ্যাত। এই বছরে দেওয়া প্রতিটি গিফট ব্যাগের মুল্য মোটামুটি ৮০ হাজার ডলার। কিন্তু এর মাঝে যেসব জিনিসপত্র থাকে সেগুলো কি আসলে এসব সেলিব্রেটিরা ব্যবহার করেন? এর মাঝে থাকে ৬.৪৯ ডলারের একটা জিনিস যা শাওয়ারের ড্রেইনে চুল আটকে যাওয়া রোধ করে! এ ছাড়াও রয়েছে দুষ্কৃতকারী দ্বারা আক্রান্ত হলে তার চোখেমুখে ছিটিয়ে দেওয়ার একধরণের ঝাঁঝালো স্প্রে এর প্লাস্টিক বোতল।
৫) সেলিব্রেটিরা এখন বেশি কাঁদেন
যত সময় যাচ্ছে, অস্কার অনুষ্ঠানে কান্নাকাটির পরিমান ততই বেড়ে চলেছে! ২০১৩ সালে প্রকাশিত একটি গবেষণা এটাই জানায় আমাদেরকে। আগে পুরষ্কার নিতে গিয়ে তারা এত কান্নাকাটি করতেন না, এত বেশি আবেগপ্রবণ হয়ে উঠতেন না। নায়িকারা নায়কদের চাইতে দ্বিগুণ কেঁদে থাকেন, আর গত ১৫ জন বিজয়ী নায়িকার মাঝে ১২ জনই কেঁদে ফেলেছিলেন।

Loading...

No comments

Powered by Blogger.