ইলেকট্রিক বিল-মোবাইল বিল ছাড়ের আর্জি!


ইলেকট্রিক বিল প্রত্যেকরেই মোবাইলে এসেছে। তা রিডিং এর দাঁড়ায় নয়। তা এসেছে সারা বছরের নাকি গড় হিসেবে। দিতে হচ্ছে সবাইকে। পাশাপাশি মোবাইলের বিলও আছে প্রত্যেকের।না হলে ফোন, নেট কিছুই করা যাবে না। ফলে সব বিলই রিচার্জ করতে হচ্ছে। একমাস লকডাউনের মধ্যে বিল পে করেছে সবাই। কিন্ত পরের মাসের টাকা কোথায়? সাথে আছে গ্যাসেরও বিল। কার্যত চিন্তায় ঘুম হচ্ছে না মধ্যবিত্ত ও নিম্নবিত্ত শ্রেণির মানুষদের।


এবার ইলেকট্রিক বিল, মোবাইলের বিল ছাড়ের জন্য সরকারকে আর্জি জানালেন বিশিষ্ট সমাজসেবী বিদ্যুৎ পোদ্দার। তিনি বলেন, প্রত্যেকরেই ইলেকট্রিক বিল এসেছে, তা দিতেও হয়েছে। কিন্ত সামনের মাসের বিল দেওয়ার মতন পর্যাপ্ত টাকা মধ্যবিত্ত ও নিম্নবিত্ত মানুষ কারোর কাছেই নেই। ফলে রাজ্য সরকার যদি ইলেকট্রিক বিলের উপর ছাড় দেন তাহলে উপকৃত হবে সবাই। পাশাপাশি তিনি ওষুধের দাম ছাড়ের কথাও বলেন।

পাশাপাশি তিনি মোবাইলের বিল মুকুব করার কথাও জানান।কারণ নেটের সাহায্যে বহু পড়ুয়ারা অনলাইনে ক্লাস করছে, যদি এই সময় মোবাইলের বিলে ছাড় দেওয়া হয় তাহলে অভিভাবকরা স্বস্তি অনেকটাই পাবে। ও বিদ্যুৎ বাবু বলেন, এর আগেও বেসরকারি অফিসগুলি যেন তাদের কর্মচারীদের বেতন দেয় তার অনুরোধ করেছিলেন।কিন্তু এখনও পর্যন্ত অনেক কোম্পানিই তাদের কর্মচারীদের বেতন দেয়নি। ফলে আজও তিনি অনুরোধ করেন সেই সমস্ত বেসরকারি কোম্পানির মালিকদের, যেন কর্মচারীদের বেতন তারা দেন। তাহলে খেয়ে পরে বাঁচতে পারবেন মানুষগুলি।
Loading...

No comments

Powered by Blogger.