ছাগলের পেটে মানবশিশু!



পৃথিবীতে যে কত অস্বাভাবিক ঘটনা ঘটে চলেছে প্রতিনিয়ত তারই একটি উদাহরণ হতে পারে ছাগল। ভারতের কর্ণাটকের শোলাপুরের একটি গ্রামে ছাগলের পেটে জন্ম নিলো ছোট্ট দু’টি শাবক। কিন্তু হুবহু মানুষের রূপ।
ওই ছাগল শাবকদের শরীরটা যেন পুরো স্টিলের। আর চোখ, নাক, মুখ, বুক, পেট, হাত, পা সব কিছুতেই অবিকল মানবশিশুর আদল। শুধুমাত্র কান আর পায়ের পাতা দেখতে তার মায়ের মতো। অর্থাৎ ছাগলের একমাত্র চিহ্ন রয়েছে সেই দুটি অঙ্গে। আর বাকি ৭০ শতাংশই মানুষের চিহ্ন।
অদ্ভূত এই ঘটনায় স্তম্ভিত এলাকার মানুষ শাবক দু’টি দেখতে ভিঁড় জমান। কেউ বলেন, এটা একটা বিচ্ছিন্ন ঘটনা। কেউ আবার এর পেছনে অলৌকিক কোনও বস্তুর আশঙ্কায়, শাবক দু’টিকে মেরে ফেলার কথা বলেন। ছাগলটি যে ব্যক্তির গৃহপালিত তিনি জানান, ‘চার বছর ধরে ছাগলটি আমার কাছে রয়েছে। এর মধ্যে সে ১০টি বাচ্চা দিয়েছে। প্রত্যেকটা বাচ্চাই স্বাভাবিক।’
পশুপালন বিভাগের সহ অধিকর্তা ড. দেবা দাসের বক্তব্য, ‘জিনগত সমস্যার জন্য বা কোনও সংক্রমণের কারণে এ ধরনের ঘটনা ঘটতে পারে।’ মানুষরূপী ছাগল ছানা দু’টিকে সংরক্ষণ করে মাইসোর দশেরা প্রদর্শনীতে দেখানো হবে বলে জানান তিনি।
Loading...

No comments

Powered by Blogger.