বসন্তোৎসবে অশ্লীল ছবির দায় বহিরাগতদের ওপর চাপালেন রবীন্দ্রভারতীর উপাচার্য

Image result for রবীন্দ্রভারতী বিশ্ববিদ্যালয়

 বসন্তোৎসব পালনের দিনে তরুণীদের পিঠে রঙ দিয়ে কুরুচিকর ভাষায় লেখা নিয়ে যে বিতর্ক তৈরি হয়েছিল, তার দায় বহিরাগতদের ওপরেই চাপিয়ে দিলেন রবীন্দ্রভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য। তাঁর বক্তব্য যারা পিঠে-বুকে অশ্লীল গালিগালাজ লিখেছে যারা তারা কেউই ওই বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রছাত্রী নয়। তারা হুগলি, চন্দননগর, চুঁচুড়ার বিভিন্ন কলেজের ছাত্র। তাঁদের বিরুদ্ধে দমদমের সিঁথি থানায় অভিযোগ দায়ের কড়া হয়েছে বলেও জানালেন উপাচার্য সব্যসাচী বসু রায়চৌধুরি। সঙ্গে তিনি এও জানিয়েছেন, ছবিগুলি আদৌ সুপার ইম্পোজ করে ছাপানো কিনা তাও খতিয়ে দেখা হচ্ছে। 

Image result for রবীন্দ্রভারতী বিশ্ববিদ্যালয়

বহু বছর ধরেই রবীন্দ্রভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্যাম্পাসে বসন্তোৎসব পালিত হয়ে আসছে। রবীন্দ্রভারতীর ছাত্রছাত্রী বাদেও বহিরাগতদের আমন্ত্রণ জানানো হয় এই অনুষ্ঠানে। গতকাল ছিল সেই অনুষ্ঠান। ওই অনুষ্ঠানের কিছু ছবি ও ভিডিও ছড়িয়ে পরে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে। তাতে দেখা যায় ছাত্রছাত্রীদের পিঠে বুকে অশ্লীল শব্দ লেখা। শুধু তাই নয় রবীন্দ্রনাথের গানের বিকৃতি করে সেখানে অশ্লীল শব্দ বসানো হয়েছে। রবীন্দ্রনাথের নামাঙ্কিত বিশ্ববিদ্যালয়ের অনুষ্ঠানে এমন কুরুচিকর আচেরনের নিন্দা করেন সবাই। বাঙ্গালির শিক্ষা সংস্কৃতির রুচি নিয়ে প্রশ্ন তুলছেন অনেকেই। বর্তমান প্রজন্মের একাংশের মধ্যে এইরকম বিকৃত রুচির আস্ফালন দেখা যাচ্ছে। গতকাল বিশ্ববিদ্যালয় চত্বরে পিঠে বুকে রবীন্দ্রনাথের গানের সঙ্গে অশ্লীল শব্দ জুড়ে ঘুরে বেরিয়েছে তরুণ তরুণীরা। অনেক বহিরাগতও ক্যাম্পাসে উপস্থিত ছিল কালকের অনুষ্ঠানে। এই কারনেই উপাচার্য বিতর্কিত ছবি কাণ্ডে বহিরাগতদের ঘারেই দোষ চাপালেন।
Loading...

No comments

Powered by Blogger.