লকডাউনের শেষ মূহুর্তে বাজারে উপচে পড়লো ভীড়






হুগলী :  লকডাউনের  ঘড়ির  কাঁটা পাঁচটা সরকারি নির্দেশের শেষ মুহূর্তে হুগলী জেলার বড় পাইকারি বাজার শেওড়াফুলির আরতে হুড়োহুড়ি পড়ে গেল খুচরো ক্রেতা থেকে বাজারের বিক্রেতাদের। আলু, পিয়াজ ও কাঁচা সবজি বাজার গত কয়েকদিনের তুলনায় দাম ছিল আগুন। লকডাউনের আতঙ্কে বেশি পরিমাণ মালপত্র কিনে রেখে মজুদ করার হিড়িক খুচরো ব্যবসায়ী ও খুচরো ক্রেতাদের,  ফলে এক শ্রেনীর  অসাধু ব্যবসায়ী এই সুযোগ সুযোগে কালোবাজারি করছে বলে অভিযোগ।  সকাল থেকে ট্রেন চলাচল বন্ধ হুগলীর  তারকেশ্বর, হরিপাল, নালিকুল ও কাটোয়া শাখা থেকে কাঁচা সবজি, আনাজ আমদানি হয়নি শেওড়াফুলি আরতে।   কিছু কাঁচা সবজী ও আনাজ ট্রাকে আনা হলেও গত কয়েকদিনের তুলনায় অনেকটাই কম। সেই সুযোগ নিয়ে অসাধু ব্যবসায়ীরা সবজির এবং আনাজ চড়া দামে বিক্রি করছে বলে অভিযোগ ক্রেতাদের।  পাশাপাশি আলু ও পেঁয়াজ মজুদাররা  সুযোগ বুঝে কোপ মেরেছে বলে অভিযোগ।  বিক্রেতা বলেন মালের কোন ঘাটতি নেই শুধু ক্রেতারা লকডাউন এর আতঙ্কে পরিমাণের বেশি মালপত্র কিনে বাড়িতে মজুদ করছে, ফলে অন্য দিনের তুলনায় বাজারের বিক্রি বেশী হয়েছে।  পুলিশ প্রশাসন ও বাজার কর্তৃপক্ষের মাইকিং করে কালোবাজারি করা চলবেনা এবং  বাজার খোলা থাকবে।  একদিকে যেমন করোনার আতঙ্ক পিছু ছাড়ছে না তখন বাড়তি আতঙ্ক তৈরি হয়েছে খাদ্যরসিক বাঙ্গালীদের মধ্যে।
Loading...

No comments

Powered by Blogger.