মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশে কলকাতার এস এস কে এম হাসপাতালে অসুস্থ ছাএীর চিকিৎসার ব্যাবস্থা



মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশে কলকাতার এস এস কে এম হাসপাতালে অসুস্থ ছাএীর চিকিৎসার ব্যাবস্থা



মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায় মঞ্চে নিজে হাতে সবুজসাথীর সাইকেল বিলি করতে গিয়েই নজরে আসে নবম শ্রেণির ছাত্রী ছবি দেবশর্মার গলায় ভয়ানক টিউমার।  কথা বলেন অসুস্থ সেই ছাত্রীর সাথে। সাথে সাথেই মঞ্চ থেকেই জেলাশাসক অরবিন্দ কুমার মীনাকে নির্দেশ দেন ছবি দেবশর্মার প্রয়োজনীয় চিকিৎসা ব্যাবস্থা করার। মুখ্যমন্ত্রীর সেই নির্দেশ পেয়ে জেলাশাসকের দপ্তর থেকে ছবির পরিবারের সাথে কথা বলে কলকাতার এস এস কে এম হাসপাতালে ছবির চিকিৎসার ব্যাবস্থা করা হয়। আগামী ১০ মার্চ অসুস্থ ছাত্রী ছবি দেবশর্মাকে রায়গঞ্জ থেকে নিয়ে যাওয়া হচ্ছে কলকাতার পিজি হাসপাতালে। মুখ্যমন্ত্রীর এই সাহায্য সহযোগিতা ও মানবিকতায় আপ্লুত ছবির পরিবার। দিনমজুর বাবা নিরেন দেবশর্মা মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায়ের উদ্যোগেই আজ আমার মেয়ে সুস্থ হয়ে ফিরতে পারবে।



উত্তর দিনাজপুর জেলার কালিয়াগঞ্জ ব্লকের সুরসা গ্রামের বাসিন্দা দিনমজুর নিরেন দেবশর্মার ছোট মেয়ে ছবি দেবশর্মার পাঁচ বছর বয়স থেকেই গলায় ভয়ানক টিউমার রয়েছে। দিনমজুরি করে কোনওরকমে পেটের ভাতের জোগার করেন তিনি। এরইমধ্যে বড় মেয়ের বিয়েও দিয়েছেন। ছোট মেয়ের গলার টিউমারের জন্য বাইরে নিয়ে গিয়ে চিকিৎসা করানোর মতো আর্থিক অবস্থা নেই তাঁর। পাঁচ বছর বয়স থেকেই এভাবেই গলায় বড় টিউমার নিয়েই সব বাধা বিপত্তি পার করে ছবি এখন শেরগ্রাম  হাইস্কুলের নবম শ্রেনীর ছাত্রী।
গত ৩ মার্চ উত্তর দিনাজপুর জেলায় কালিয়াগঞ্জে সরকারি বিলি বন্টন সভায় যোগ দিতে আসেন রাজ্যের মানবিক মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায়।  সেখানেই মঞ্চে মুখ্যমন্ত্রীর হাত থেকে সবুজসাথীর সাইকেল নিতে ওঠে শেরগ্রাম  হাইস্কুলের নবম শ্রেনীর ছাত্রী ছবি দেবশর্মা।  সাইকেল বিলি করার সময়ই মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধায়ের নজরে পড়ে ছবির গলার ভয়ানক ওই টিউমারটির ওপর। তৎক্ষনাৎ মঞ্চেই অসুস্থ ছাত্রী ছবি দেবশর্মার সাথে কথা বলেন মুখ্যমন্ত্রী।  জানতে পারেন আর্থিক অনটনের কারনে চিকিৎসা করাতে পারছেন ছবির দিনমজুর বাবা নিরেন দেবশর্মা। সাথে সাথেই মঞ্চে থাকা উত্তর দিনাজপুর জেলাশাসক অরবিন্দ কুমার মীনাকে নির্দেশ দেন ছবির প্রয়োজনীয় চিকিৎসার ব্যাবস্থা করার। এরপরই জেলাশাসকের দপ্তরের এক আধিকারিক ছুটে যান সুরসা গ্রামে ছবিদের বাড়িতে। ছবি ও তার বাবা নিরেন দেবশর্মাকে সাথে নিয়ে চলে আসেন কর্নজোড়ায় জেলাশাসকের কাছে। এরপর রাজ্য স্বাস্থ্যভবনের মাধ্যমে কলকাতায় এস এস কে এম হাসপাতালে ছবি দেবশর্মার চিকিৎসা করানোর উদ্যোগ নেওয়া হয়। আগামী ১০ মার্চ ছবির স্কুল শেরগ্রাম হাইস্কুলের প্রধান শিক্ষককে সাথে দিয়ে ছবি, ছবির মা ও তার বাবা নিরেন দেবশর্মাকে রায়গঞ্জ থেকে কলকাতার পিজিতে চিকিৎসা করানোর জন্য পাঠানোর ব্যাবস্থা করা হয়েছে। কলকাতায় যাতায়াত থেকে শুরু করে তাদের থাকা খাওয়া ও চিকিৎসার সমস্ত ব্যায়ভার বহন করছে রাজ্যের মা মাটি মানুষের সরকারের মানবিক মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায়।  পাঁচ বছর বয়স থেকে গলায় থাকা ভয়ানক বড় আকারের টিউমারের চিকিৎসা পেতে চলেছে ১৬ বছর বয়সী নবম শ্রেনীর ছাত্রী ছবি দেবশর্মা। এটা শুধুমাত্র মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দোপাধ্যায়ের সহমর্মিতা,  মানবিকতার কারনেই সম্ভব হয়েছে তা বলাইবাহুল্য। খুশী ছবি বিদ্যালয়ের সহপাঠী থেকে শিক্ষক শিক্ষিকারা এবং অবশ্যই দিনমজুর নিরেন দেবশর্মা ও তার পরিবার।


Loading...

No comments

Powered by Blogger.