গার্লস হোস্টেলের সামনে দাঁড়িয়ে পুলিশের হস্তমৈথুন


গার্লস হোস্টেলের সামনে দাঁড়িয়ে হস্তমৈথুন করছিলেন এক পুলিশকর্মী। সেই ঘটনার ভিডিও ভাইরাল হয় শনিবার। তার পরেই বিষয়টি নিয়ে হইচই শুরু হয়েছে।
ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের হায়দরাবাদের টাটা ইনস্টিটিউট অব সোশ্যাল সায়েন্স-এর গার্লস হোস্টেলের সামনে। ইতোমধ্যে আদিবাতলা থানা বিষয়টি নিয়ে অভিযোগও দায়ের করা হয়েছে।
গার্লস হোস্টেলের সামনে দাঁড়িয়ে হস্তমৈথুনের এই ঘটনাটি ঘটেছিল গত বছরের ২০ অক্টোবর। সে দিন বিকেল তিনটে নাগাদ এক ছাত্রী হোস্টেল থেকে দোকানের দিকে যাচ্ছিলেন। তখনই তিনি এক ব্যক্তিকে হস্তমৈথুন করতে দেখেন। ওই ব্যক্তির পরনে ছিল পুলিশের পোশাক। সেই সময় ভিডিও করা হলেও ওই কাজ থেকে বিরত হননি ওই পুলিশ কর্মী। ওই ছাত্রী সাহায্যের জন্য চিৎকার শুরু করলে পালিয়ে যায় ওই অভিযুক্ত।
সে সময় সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে এই ঘটনার কথা জানান ওই ছাত্রী। কিন্তু পুলিশের তরফে কোনও ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি বলে অভিযোগ। সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় ভিডিওটি ভাইরাল হতেই সকলের নজরে আসে তা।
তার পর এক উচ্চপদস্থ পুলিশকর্তা অভিযোগকারিণীর সঙ্গে যোগাযোগ করে অভিযোগ দায়ের করতে বলেন। এর পর আদিতাবাদ পুলিশ স্টেশনে অভিযোগ দায়ের করা হয়। রাজকোন্ডা পুলিশ কমিশনার মহেশ এম ভাগবত বলেছেন, ‘‘শনিবার ভিডিওটি আমার নজরে আসে। সঙ্গে সঙ্গে আমি ঘটনার তদন্তের নির্দেশ দিয়েছি। পুলিশ ঘটনার তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেবে।’’
কলেজ ক্যাম্পাস থেকে ওই গার্লস হোস্টেলের দূরত্ব ৫০০ মিটার মতো। সেই রাস্তার মধ্যে ঝোপঝাড়ও রয়েছে। হোস্টেলের সামনে ওই রাস্তায় প্রায়শই কিছু লোক তাঁদের হেনস্থার চেষ্টা করেন বলে জানিয়েছে হোস্টেলের বেশ কয়েক জন ছাত্রী।
Loading...

No comments

Powered by Blogger.