নারীর বীর্যপাত কি পুরুষের মতো?


নারীর যোনিমুখের দু’পাশে বিশেষ গ্রনথি আছে । কামোত্তেজনার সময় এই গ্রনথি থেকে এক রকম তরল রস নির্গত হয়,যা কিনা সারা যোনি- মুখকে ভিজিয়ে পিচ্ছিল করে দেয়, এর ফলে পুরুষের লিঙ্গ তার গভীরে প্রবিষ্টকরতে সুবিধে হয় । তরে বাইরে থেকে এই গ্রনথি দৃশ্যতনয়, চামড়ার আড়ালে ঢাকা থাকে ।
কিন্তু যোনিমুখে রস নিঃসরণ সরাসরি চোখে দেখা যায় ।
সব সময় এই রস নিঃসৃত হয় না ।কেবল যখন প্রবল কামোত্তেজনা সূষ্টি হয়- তখনি বার্থোলিন গ্রনথি এই রস সৃষ্টি করে । নারীর এই কামরসের মতো পুরুষের কামোত্তেজনার প্রথম অবস্হায় এক ধরনের তরল রস নিঃসরন হয় । অনেকের ভুল ধারনাআছে, সেই রসের মধ্যে শুত্রূবীজানু থাকে । আসলে তাদের সেই ধারনা ভুল ।সেই রসেকোন শুত্রূবীজানু থাকে না । আবার নারীদেহের এই কামরসের সঙ্গে ডিমবোকোষের কোন সস্পর্ক নেই । তবে একে যেঅন্যের সহায়কএ কথা বলা নিস্পয়োজন ।
অনেকেইবলে থাকেন, রতিক্রিয়া শেষে পুরুষের মতো কি নারীর যোনি থেকেও বীর্যপাত ঘটে ? এক কথায়এর জবাব হল ‘না ।’ মেয়েদের কোনো বীর্যপাত হয় না ।
তাদের বীর্য হলো ডিমবোকোষ ।
তবে মানুষের মনে এ কথা জাগার কারন হলো, যৌন-মিলনের ইচ্ছা জাগলে কিংবা মিলনে প্রবৃত্ত হলে, বিশেষকরে পুরুষের লিঙ্গ সঞ্চারনের ফলে তাদের যোনিপথেযে কামরস নিঃসৃত হয়, অনেকেই ভুল করে সেই রসকে বীর্য বা শুক্র বলে ধরে নেয় ।
আর এ ধরনের রস-নিঃসরন পুরুষের লিঙ্গ-নালী থেকেও বেরিয়ে থাকে । নারী-দেহে এই রস ক্ষরনরতি উত্তেজনা থাকা পর্যন্ত কম বেশী বর্তমান থাকতে দেখা যায় ।
Loading...

No comments

Powered by Blogger.