কোবির মৃত্যু পাল্টে দিয়েছে কোহলির জীবনদর্শন




কোবির মৃত্যু পাল্টে দিয়েছে কোহলির জীবনদর্শন

নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে প্রথম ওয়ানডে খেলতে নামার আগে কোবি ব্রায়ান্টকে স্মরণ করেন বিরাট কোহলি। মার্কিন বাস্কেটবল কিংবদন্তির মৃত্যুতে মর্মাহত তিনি। শুধু তাই নয়, তার মৃত্যুতে জীবনদর্শনও পাল্টে গেছে ভারতীয় অধিনায়কের। বুধবার হ্যামিল্টনে তিন ম্যাচ সিরিজের প্রথম ওডিআই খেলতে নামবে নিউজিল্যান্ড-ভারত। মঙ্গলবার ম্যাচ-পূর্ববর্তী সংবাদ সম্মেলনে কোবিকে নিয়ে কোহলিকে প্রশ্ন করেন এক সাংবাদিক।

জবাবে তিনি বলেন, এভাবে সেরা একজন খেলোয়াড়ের বিদায় মেনে নেয়া যায় না। কোবির পরপারে পাড়ি জমানো বিশ্বের ক্রীড়াপ্রেমীর কাছে জোর ধাক্কা। জীবন কতটা অনিশ্চিত হতে পারে, তার এ ঘটনা থেকে আমাদের শিক্ষা নেয়া উচিত। আমরা জীবন থেকে অনেক প্রত্যাশা করি। কিন্তু জীবন বাঁচাতে ভুলে যাই। এক্ষেত্রে আমরা বড় ভুল করি। ক্যারিয়ার আমাদের যা দিয়েছে, তা নিয়ে সন্তুষ্ট থাকা উচিত। সৃষ্টিকর্তার প্রতি কৃতজ্ঞতা জানানো দরকার।

এখানেই থেমে থাকেননি বিরাট। তিনি যোগ করেন,জীবনে অনিশ্চয়তা, চাপ-সবকিছুই থাকবে। তবু জীবনকে উপভোগ করতে হবে।

গত ২৬ জানুয়ারি যুক্তরাষ্ট্রের স্থানীয় সময় সকাল ১০টায় ক্যালিফোর্নিয়ায় ক্যালাবাসেস পাহাড়ের চূড়ায় কোবির হেলিকপ্টার ধাক্কা খায়। ধাক্কার সঙ্গে সঙ্গে সেটি ভেঙে পড়ে। মেয়ের সঙ্গে অ্যাকাডেমিতে কোচিং করাতে সেই হেলিকপ্টারে করে উড়ে যাচ্ছিলেন তিনি। কিন্তু ভয়াবহ দুর্ঘটনায় সেটি টুকরো টুকরো হয়ে যায়।

দুর্ঘটনার অভিঘাত এতটাই বেশি ছিল যে, কোবির মৃতদেহ খুঁজে পেতে কয়েকদিন লাগবে বলে সেসময় জানায় স্থানীয় পুলিশ। ন্যাশনাল বাস্কেটবল অ্যাসোসিয়েশন (এনবিএ)ইতিহাসে ব্রায়ান্টকে সর্বকালের অন্যতম সেরা খেলায়াড় ধরা হয়। মৃত্যকালে তার বয়স ছিল মাত্র ৪১ বছর। ওই দিন সোশ্যাল মিডিয়া ইনস্টাগ্রামে কোবির ছবি পোস্ট করে কোহলি লেখেন, সকালে উঠেই এ খবর শুনে মর্মাহত। ছোটবেলায় তার অনেক ম্যাচ দেখেছি। তাকে নিয়ে অনেক স্মৃতি রয়েছে। জীবন সত্যিই অপ্রত্যাশিত। দুর্ঘটনায় ওর মেয়েও সঙ্গে ছিল। ১৩ বছরের জিয়ান্নাও মারা গেছে। সত্যিই আজ মনটা খুব খারাপ। ব্রায়ান্টের পরিবারের প্রতি সমবেদনা রইল।

Loading...

No comments

Powered by Blogger.