নেইমারের জন্মদিনে কেন গেলেন না এমবাপ্পে




নেইমারের জন্মদিনে কেন গেলেন না এমবাপ্পে 


 একে একে ২৭টি বসন্ত পার করে ফেললেন নেইমার। আগামীকাল বুধবার ২৮ বছরে পা রাখবেন তিনি। এর আগে মঙ্গলবার পিএসজির ম্যাচ রয়েছে। তাই জন্মদিনের উৎসবটা আগেই সেরে নিয়েছেন দ্য পারিসিয়ান তারকা।

গত রোববার প্যারিসের প্যালেস দ্য টোকিও ইয়ো ক্লাবে জাঁকজমকভাবে ২৮তম জন্মদিন উদযাপন করেন নেইমার। সেখানে বসেছিল তারার মেলা। এসেছিলেন তার ক্লাব সতীর্থরা। মার্কো ভেরাত্তি, এডিনসন কাভানি, অ্যাঞ্জেল ডি মারিয়ারা অনুষ্ঠান আলো করে রেখেছিলেন। সঙ্গে দ্যুতি ছড়ান লিঁও উইঙ্গার মেম্ফিস ডিপে।

তবে ‘অল হোয়াইট’ থিম পোশাকের এ পার্টিতে যাননি নেইমারের প্রিয় দ্য পারিসিয়ান সতীর্থ কিলিয়ান এমবাপ্পে। এদিন ডিজনিল্যান্ডে যান তিনি। সেখানে নিজের দাতব্য সংস্থা ‘ট্রেম্পলিনস’-এর জন্য অর্থ সংগ্রহের অনুষ্ঠান আয়োজন করেন পিএসজির প্রাক্তন মিডফিল্ডার ব্লেইস মাতুইদি। তাতে তাকে সময় দেন ফরাসি বিস্ময়।

মাতুইদি ও এমবাপ্পে ফ্রান্স জাতীয় দলের হয়ে খেলেন। এ ছাড়া তাদের মধ্যে ভালো বন্ধুত্ব রয়েছে। স্বভাবতই বন্ধুর ডাকে সাড়া দেন এমবাপ্পে। সেখানেও বসেছিল তারার হাট। তার সঙ্গে মাতুইদির অনুষ্ঠানে যোগ দেন জুভেন্টাস তারকা পাওলা দিবালা এবং পিএসজি ফরোয়ার্ড জুলিয়ান দ্রাক্ষ্মলার।

নেইমারের জন্মদিনে এমবাপ্পের অনুপস্থিতি পিএসজি সমর্থকদের মাথা ঘামাতে পারে। কারণ আগের ম্যাচে টমাস টুখেলের সঙ্গে লেগে যায় ফরাসি তারকার। তার ইচ্ছার বিরুদ্ধে তাকে মাঠ থেকে তুলে নেন কোচ। যে ম্যাচে মন্টেপেলিয়ারকে ৫-০ গোলে উড়িয়ে দেয় প্যারিসের দলটি।

এমবাপ্পে সম্ভবত সেই ইস্যু থেকে নিজেকে দূরে সরিয়ে রাখতে চাইছেন। অধিকন্তু ভুলে গেলে চলবে না তাকে পেতে এখনও মরিয়া রিয়াল মাদ্রিদ। সব মিলিয়ে হয়তো পিএসজি থেকে মনটা একটু দূরে সরাতে চেয়েছিলেন। তাই আক্রমণভাগের সতীর্থের জন্মদিনে যাননি তিনি।

Loading...

No comments

Powered by Blogger.