আমি মাথা নত করি না :মমতা ব্যানার্জি



ফের সংশোধিত নাগরিত্ব আইন (সিএএ) নিয়ে  সুর চড়ালেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। রানাঘাটে সিএএ-বিরোধী একটি জনসভায় বক্তব্য রাখতে গিয়ে মমতা বলেন, ‘বাঙালি মানেই বলা হচ্ছে অনুপ্রবেশকারী, এটা বাংলার অপমান নয়?’ আমার দেহের ওপর দিয়ে করতে হবে এনআরসি। রানাঘাটের সভা থেকে বার্তা দিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। তিনি বলেন, তিনি যেটা বলেন, সেটা করেন। একইসঙ্গে তিনি বনগাঁ, রানাঘাটের মতো আসনে হারের জন্য ব্যর্থতার কথা স্বীকার করেন নেন।
তফশিলি জাতিদের জন্য সংরক্ষিত দুই আসন এলাকায় সভার স্থল বিবেচনা করেছেন তিনি নিজেই। এদিন দুই সভাতেই জানিয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। ৮৪ টি উদ্বাস্তু কলোনিতে পাট্টা তিনিই দিয়েছেন বলে স্মরণ করিয়ে দেন তিনি। রাজ্যে সিএএ, এনআরসির ভয়ে ৩১ থেকে ৩২ জনের মৃত্যু হয়েছে বলেও দাবি করেন তিনি। মুখ্যমন্ত্রী বলেন, মিথ্যা কুৎসার ঝড় চলছে। মানুষ আতঙ্কে ভুগছে। মুখ্যমন্ত্রী জানিয়ে দেনে, জীবন দেবেন কিন্তু আত্মসমর্পণ করবেন না। রাজ্যে এনআরসি, এনপিআর হবে না বলেও জানিয়ে দেন।
মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় এদিন বিজেপি নেতাদের মুখে গুলি করে মারার কথার প্রবল সমালোচনা করেন। মুখ্যমন্ত্রী বলেন, দিল্লি, উত্তর প্রদেশে প্রতিদিন গুলি করে মারা হচ্ছে। তাঁর আরও অভিযোগ বিজেপি নেতারা মেয়েদের ওপরও অত্যাচার করার নির্দেশ দিচ্ছে।মুখ্যমন্ত্রী এদিনের দুই সভা থেকে নোটবাতিলের কথা বলে বিএসএনএল, এলআইসি নিয়ে কেন্দ্রের বর্তমান অবস্থার কথা উল্লেখ করেন।

তিনি বলেন, একের পর এক সরকারি কিংবা রাষ্ট্রায়ত্ত সংস্থা বেচে দিচ্ছে মোদী সরকার। তিনি কটাক্ষ করে বলেন, বিজেপি ভোট নিল কিন্তু বিক্রি করে দিল সব কিছু।সভায় লোকসভা নির্বাচনে দলের ব্যর্থতার কথা স্বীকার করে নেন তৃণমূল সুপ্রিমো মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। নির্বাচনের সময় হাতে টাকা দিয়েছে, অ্যাকাউন্টে টাকা দিয়েছে। বিষয়টি তারা পরে জানতে পেরেছেন।
এদিন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আরও বলেন, শুধু পশ্চিমবঙ্গ নয় ,এনআরসি আতঙ্কে অসমে ১০০ জনের মৃত্যু হয়েছে৷ নানাভাবে মানুষকে ভয় দেখানো চলছে বলেও দাবি করেন তিনি৷ তাঁর কথায়, ‘বাংলার মানুষ ভয় পায় না৷ এনআরসি-র নামে বাঙালিদের তাড়ানো হলে আমি জীবন দিতে তৈরি৷’
এতদিন ভোট দিয়েছেন তাও নাগরিকত্ব প্রমান করতে হবে৷ তিন পুরুষের জন্ম সার্টিফিকেট দেখানো নিয়ে মানুষের মনে প্রশ্ন উঠেছে৷ আমি বলি, আপনারা কাগজ একদম দেখাবেন না৷ কেউ কিছু জিজ্ঞাসা করলে পুরোটা বলবেন না৷ কিছু জমা রাখতে বললে,রাখবেন না৷ দাঙ্গাবাজ বিজেপিকে বিশ্বাস করবেন না৷
বিজেপির পাশাপাশি এদিন সিপিএম- কংগ্রেসের বিরুদ্ধেও তোপ তাগলেন মমতা৷ তিনি বলেন,সাম্প্রদায়িক উসকানি দিচ্ছে সিপিএম- কংগ্রেস৷ ঘোলা জলে মাছ ধরছে সিপিএম- কংগ্রেস আসলে এরা সব জগাই-মাধাই-গদাই৷ সকালে সিপিএম,দুপুরে কংগ্রেস আর রাতে বিজেপি৷ কাউকে বিশ্বাস করবেন না৷
এদিন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আরও বলেন, বিজেপি তোমার কত শক্তি , আমি দেখতে চাই৷ ভোটের জন্য অনেকে মিথ্যা কথা বলে৷ অনেকে গন্ডগোল পাকান, আমি সেই দলে নেই৷ মতুয়া ও অনুকুল ভক্তরা আসলে বুকে স্থান দেব।’
তিনি আরও বলেন, ‘আমি জগাই মাধাইদের মত নই৷আমি ভোট চাইতে আসিনি৷ আমরা ভোটের সময় চৌকিদার বলি না৷ মানুষের বিপদে থাকি।
আবারও মমতা বলেন, ‘বাংলায় এনআরসি করতে দিতে দিচ্ছি না, দেব না৷’ মমতার অভিযোগ, এনআরসির প্রথম ধাপ এনপিআর এ ঢুকিয়ে দিয়েছে৷ তাই আমি এনপিআর করতে দিচ্ছি না।
Loading...

No comments

Powered by Blogger.