বিশ্বের সবচেয়ে বড় রক্তাক্ত উৎসব গাধিমাই



নেপালে প্রায় আড়াইশ বছর ধরে পালন করা হচ্ছে গাধিমাই উৎসব। এটি বিশ্বের সবচেয়ে বড় রক্তাক্ত উৎসব হিসেবে পরিচিত। প্রাণী দাতব্য সংস্থাগুলো এই পশু বলিদান প্রথা ২০১৪ সালে সমাপ্তি ঘোষণা করেছিল।কিন্তু মঙ্গলবার ছাগল, ইঁদুর, মুরগি, শূকর আর কবুতর হত্যার মধ্য দিয়ে এ উৎসব আবার শুরু করা হয়েছে। ২০১৪ সালের সর্বশেষ উৎসবে প্রায় দুই লাখ প্রাণী হত্যা করা হয়েছিল। এই প্রথার শুরু হয় প্রায় আড়াইশ বছর আগে।তখন এক পুরোহিত বলেছিলেন, তিনি স্বপ্নে দেখেছেন- শক্তির দেবী গাধিমাই তাকে বলেছেন, কারাগার থেকে তাকে মুক্ত করতে হলে রক্ত ঝরাতে হবে।
যে লাখ লাখ ভক্ত ভারত ও নেপাল থেকে নেপালের বারিয়ারপুরে গাধিমাই দেবীর মন্দিরে যান, তাদের কাছে এটি নিজেদের ইচ্ছা পূরণ করার একটি সুযোগ।ভক্ত হিন্দুদের অনুরোধ করা যেতে পারে, যাতে তারা দেবীর উদ্দেশ্যে পশু বলি না দেন। কিন্তু সে জন্য তাদের বাধ্য করা যাবে না এবং এই রীতিও পুরোপুরি নিষিদ্ধ বা বন্ধ করা যাবে না।
দুদিনব্যাপী এই উৎসবটি শুরু হওয়ার আগে পশু আনা-নেয়া আটকে দেয়ার চেষ্টা করা হয়েছিল। অনুমোদন ছাড়া সীমান্ত দিয়ে পশু পারাপার করার সময় সেগুলো জব্দ করতে শুরু করে ভারতীয় কর্তৃপক্ষ।
নেপালের সরকারও কোনোরকম সহায়তা করেনি বলে জানিয়েছেন উৎসবের চেয়ারম্যান মতিলাল কুশোয়া।
তা সত্ত্বেও নেপালের রাজধানী কাঠমান্ডু থেকে ১৫০ কিলোমিটার দূরে বারিয়ারপুরের মন্দিরে পশু আনা হয়।
মঙ্গলবার ভোর থেকে ২০০ কসাই তাদের কাজকর্ম শুরু করার জন্য প্রস্তুতি নেন। উৎসবের চেয়ারম্যান মতিলাল কুশোয়া জানান, এই আয়োজনের মধ্যে রয়েছে বিনামূল্যের খাবার ও তাঁবু। এর পুরোটাই দান থেকে বহন করা হয়ে থাকে।
Loading...

No comments

Powered by Blogger.