১৭৬ বছর ধরে কাচের জারে বন্দি এই কাটা মুণ্ডু


কে এই ব্যক্তি? কেনই বা ১৭৬ বছর ধরে বন্দি করে রাখা হয়েছে তার কাটা মুণ্ডু? এর পিছনের কাহিনী শুনলে চমকে উঠবেন আপনিও। কী সেই কাহিনী? আসুন জেনে নেওয়া যাক_
নাম দিয়েগো আলভেজ। ১৮১০ সালে স্পেনে জন্ম। কাজের সন্ধানে দেশ ছেড়ে পর্তুগালে পাড়ি জমান মাত্র ১৯ বছর বয়সে। কিন্তু যে কারণে দিয়েগোর দেশ ছেড়ে পর্তুগালে আসা সেটাই করতে পারেনি সে। হন্যে হয়ে কাজের সন্ধান করেও কোন কাজ জোটেনি তার। কাজ না পেয়ে হতাশ হয় পড়ে দিয়েগো। সেই হতাশা থেকে প্রথমে নেশার জগতে পদার্পন এবং সেখান থেকে আস্তে আস্তে অপরাধ জগতে নাম লেখায় সে। হয়ে ওঠে দুর্ধর্ষ সিরিয়াল কিলার।
ছোটখাটো অপরাধ দিয়ে হাত পাকানো শুরু। তারপর চুরি, ছিনতাই, ডাকাতি, রাহাজানির মধ্য দিয়ে সিরিয়াল কিলার হয়ে ওঠে আলভেজ। গোটা লিসবনে ছড়িয়ে পড়ে দিয়েগো আতঙ্ক।
১৮৩৬ থেকে ১৮৪০ এই চার বছরের মধ্যে ৭০টি খুন করে রীতিমতো সাড়া ফেলে দেয় সে। তার শিকারের তালিকার বেশির ভাগই ছিল কৃষক। সারাদিন কাজ শেষে কৃষকরা যখন ক্লান্ত হয়ে বাড়ি ফিরতো তখন লিসবন নদীর সেতুর উপর দাঁড়িয়ে থাকতো দিয়েগো। তাঁদের সবকিছু লুট করে লাশ টুকরো টুকরো করে নদীতে ভাসিয়ে দিত সে।
গ্রাম থেকে একে একে রহস্যজনকভাবে নিখোঁজ হয়ে যাচ্ছিল কৃষকরা। তাঁরা আর্থিক অনটনে আত্মঘাতী হচ্ছেন এমনটাই প্রথমে রটে যায় এলাকায়। কিন্তু নিখোঁজের সংখ্যাটা যখন লাফিয়ে লাফিয়ে বাড়তে শুরু করে তখন পুলিশের সন্দেহ হয়, এর পিছনে অন্য কোনও কারণ অবশ্যই আছে।
পুলিশ খুনির সন্ধান শুরু করতেই দিয়েগো বুঝতে পারে এবার সে ধরা পড়বে। তাই তিন বছরের জন্য নিরুদ্দেশ হয়ে যায় সে। পরিস্থিতি একটু ঠান্ডা হতেই ফের খুন শুরু করে দিয়েগো। ততদিনে একটা গ্যাংও তৈরি করে ফেলে সে। ধীরে ধীরে বিশাল নেটওয়ার্ক তৈরি হয়ে যায় তার। যথেচ্ছ লুটপাট, খুন করতে থাকে সে ও তার গ্যাং। এই সময়ই এক ডাক্তার ও তাঁর পরিবারকে থুন করাটাই তার কাল হয়ে দাঁড়ায়। দিয়েগোর বাড়িতে তল্লাশি চালিয়ে তাকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ।
আদালতে দিয়েগো স্বীকার করে যে, সে ৭০ জনকে নিষ্ঠুরভাবে খুন করেছে। তার অপরাধ প্রমাণীত হওয়ার পর আদালত তাকে মৃত্যুদণ্ড দেয়।
কীভাবে এত নিষ্ঠুরতার সঙ্গে খুন করতো দিয়েগো, তা জানতে উৎসুক হয়ে ওঠে মেডিক্যাল-সার্জিক্যাল স্কুল অব লিসবনের বিজ্ঞানীরা। তার মস্তিষ্ক নিয়ে গবেষণা করার জন্য ফাঁসির পর দিয়েগোর মুণ্ডু কাটা হয়।
তবে বহু গবেষণার পরও বিজ্ঞানীরা দিয়েগোর নিষ্ঠুরতার রহস্য উম্মোচন করতে পারেননি। দিয়েগোর সেই কাটা মুণ্ডু আজও কাচের জারে সংরক্ষিত আছে লিসবন বিশ্ববিদ্যালয়ের অ্যানাটমিক্যাল থিয়েটারে।
Loading...

No comments

Powered by Blogger.