তৃণমূল বিজেপি সংঘর্ষ :আহত এক



মৌমিতা সিনহা, হুগলি:    বিজেপি কর্মীকে মারধরে অভিযোগ উঠল শাসক দলের বিরুদ্ধে।রাজ্যে সদ্য সমাপ্ত বিধানসভা উপনির্বাচনের ফল ঘোষণা হওয়ার পর থেকে রাজ্যের শাসক দলের সাথে বিরোধী বিজেপি দলের সংঘর্ষ শুরু হয়েছে। হাওড়া জেলাতেও তৃণমূল বিজেপির সংঘর্ষের জেরে গত ২৮ তারিখে বালি পাঠক পাড়ায় অঞ্চলে ১৪৪ ধারা জারি করা হয়। সেই ঘটনাকে কেন্দ্র করে দুপক্ষের মোট সাতজন জনকে আটক করে বালি থানার পুলিশ, তারপরেই বালির পাঠক করা অঞ্চল ১৪৪ ধারা আয়ত্তে চলে আসে। সেই সংঘর্ষের জেরে আজ দুপুরবেলা বিজেপির যুব মোর্চার এক সদস্যকে ব্যাপক মারধর করার অভিযোগ ওঠে তৃণমূল কংগ্রেসের সমর্থকদের বিরুদ্ধে। ঘটনাস্থল থেকে গুরুতর আহত অবস্থায় বিজেপির যুব মোর্চা সমর্থক সুরজিৎ দেবনাথ কে প্রথমে স্থানীয় বেলুড় হাসপাতালে নিয়ে গেলে সেখান থেকে হাওড়া সদর হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয়। এই ঘটনায় ওই এলাকায় ব্যাপক উত্তেজনা ছড়ায়। উত্তেজিত বিজেপি কর্মীরা এরপরে বালি থানা ঘেরাও করে এবং একজন তৃণমূল কংগ্রেস সমর্থক কে আটক করে বালি থানার পুলিশ। এই প্রসঙ্গে বিজেপির বালির যুব মোর্চার সভাপতিও রণবীর দলুই জানান সেদিনকার ঘটনাকে কেন্দ্র করে বলি থানায় এফ আর আই দায়ের করা হয়। সেই অভিযোগ দায়ের করার জেরেই আজ দুপুরে ওই ব্যক্তি যখন কাজ সেরে তার বাড়িতে আসেন, সেখানে চড়াও হয় তৃণমূলের প্রাক্তন পৌরপ্রতিনিধির নেতৃত্বে কিছু দুষ্কৃতী। ওই কর্মীকে প্রচন্ড মারধর করা হয় এবিং তার পরিবারের মহিলা সদস্যদের শ্লীলতাহানির চেষ্টাও করা হয় বলে অভিযোগ। এরপর ওই কর্মীকে বেলুড় হাসপাতালে ভর্তি করা হলে সেখানে থেকে তাকে হাওড়া সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়। এই ঘটনায় নতুন করে এফ এই আর দায়ের করা হবে বলেও তিনি জানান। তিনি আরো দাবি করেন বিজেপি করার জন্যই এই আক্রমণ তৃণমুখের পক্ষ থেকে বারবার করা হচ্ছে। তারা চান এই আক্রমণ বন্ধ হোক ও পুলিশ যথাযথ ব্যবস্থা নিক ও অপরাধীদের গ্রেফতার করুক। আজকের এই ঘটনা কে কেন্দ্র করে নতুন করে উত্তেজনা ছড়ালো বালি এলাকায়।
Loading...

No comments

Powered by Blogger.