আবার বড় পর্দায় ভুটু-চিনির দুষ্টুমি


আগের বছর বন্ধুত্ব হয়েছিল স্প্যাগেত্তি আর কালোজামের। তাদের সখ্যের মূলে ছিলেন শিবপ্রসাদ আর নন্দিতা। ‘হামি’ সিনেমায় ভুটু (ব্রত) আর চিনির (তিয়াসা) স্ক্রিন জুড়ে খুনসুটি, দিয়েই প্লট তৈরি করছে এই পরিচালক জুটি।‘কেমন হয় যদি আবার ভুটু-চিনি বড় পর্দায় ফেরে। শিবপ্রসাদ-নন্দিতা, আগামী বছরের ডিসেম্বরে ফিরিয়ে আনছেন ভুটু আর চিনিকে । ‘রামধনু’, ‘হামি’র সাফল্যের পর ছোটদের নিয়ে পরিচালক জুটির নতুন চমক ‘জুনিয়র পন্ডিত’। শুধু জুনিয়র পন্ডিতই নয়, ২০২১ সালে আবার আসছে ‘জুনিয়র কমরেড’। ছবি প্রযোজনার দায়িত্বে রয়েছে ‘উইনডোজ প্রোডাকশন’।দু’টি ছবিতেই দেখা যাবে তিয়াসা পাল ও ব্রত বন্দ্যোপাধ্যায় ওরফে ভুটু-চিনিকে। ‘হামি’এবং ‘রামধনু’-তে যাঁদের দেখা গিয়েছিল, ‘জুনিয়র পন্ডিত’-এও দেখা মিলবে তাদের অনেকরই।এই ছবিতে থাকবেন গার্গী রায় চৌধুরী, খরাজ মুখোপাধ্যায়, শিবপ্রসাদ মুখোপাধ্যায়ও। এই প্রথম হামি সিরিজের সঙ্গে যুক্ত হচ্ছেন প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়।এর আগে শিবু-নন্দিতার পরিচালনায় অন্য ছবিতে কাজ করলেও হামি সিরিজে এই প্রথমবার। ২০২০ সালে ‘জুনিয়র পন্ডিত’-এ দেখা যাবে। তবে তার চরিত্রটি ঠিক কেমন হতে চলেছে সে বিষয়ে এখনো কিছু জানাননি পরিচালকদ্বয়।হঠাৎ আবার ছোটদের নিয়ে ছবি বানানোর পরিকল্পনা কেন? নন্দিতা বললেন, “হামি এবং রামধনু, এই দুই ছবিই বেশ সাফল্য পেয়েছিল। তখনই মনে হয়েছিল এরকম ছবি আরও বানানো দরকার। বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই দেখা যায় বাবা-মা বাচ্চাদের নিয়ে ছবি দেখতে বেশি পছন্দ করেন। ‘হামি’ সেটা আমাদের দেখিয়ে দিয়েছিল। সেখান থেকেই ভাবলাম এ রকম আরো কিছু ছবি বানালে কেমন হয়? সেখান থেকেই ‘জুনিয়র পন্ডিত’ এবং ‘জুনিয়র কমরেড’-এর ভাবনা।”  
উচ্ছ্বসিত শিবপ্রসাদও আপাতত প্রতীক্ষা এক বছরের। তারপরেই বড় পর্দায় আবার দেখা মিলবে ভুটু-চিনির। অনিন্দ্যের সুরে আপনিও গুনগুনিয়ে উঠবেন, ‘ঝগড়াঝাঁটি রাগ, মারামারি ভাগ… সাতটা-আটটা হামি।

Loading...

No comments

Powered by Blogger.