জিম্বাবুয়ের ৮ মিলিয়ন মানুষ দুর্ভিক্ষের কবলে



 বর্তমানে দুর্ভিক্ষের কবলে দক্ষিণ আফ্রিকার দেশ জিম্বাবুয়ে। এই দেশকে এক সময় আফ্রিকা মহাদেশের খাবারের ভাণ্ডার ধরা হত। রাজনৈতিক অস্থিরতা,শিল্প কারখানার অব্যবস্হাপনা, খাদ্য সংকট,মুদ্রাস্ফীতি ও চরম দুর্নীতির মাধ্যমে এই দেশের অর্থনীতি মারাত্মকভাবে অধঃ:পতন হয়েছে।জাতিসংঘের এক বিশেষ দূত হিলাল এলভার দক্ষিণ আফ্রিকার দেশ জিম্বাবুয়ে সফর শেষে বলেছেন, জিম্বাবুয়ের সংঘাতের অঞ্চলে বিদেশের বাইরে প্রচুর খাদ্য ঘাটতির সম্মুখীন হওয়া শীর্ষ চারটি দেশের মধ্যে স্থান দিয়েছেন। ‘জিম্বাবুয়ের মানুষ আস্তে আস্তে মানবসৃষ্ট অনাহারে ভুগতে শুরু করেছে’।মূ্দ্রাস্ফীতির কারণে দ্রব্যমূল্যের মারাত্মক ঊর্ধ্বগতি জনগণকে আরও মারাত্মকভাবে দুর্ভিক্ষের দিকে টেলে দিচ্ছে। শহরাঞ্চলের আরও ২.২ মিলিয়ন মানুষ খাদ্য সংকটের মুখোমুখি হয়েছেন এবং স্বাস্থ্য এবং নিরাপদ পানিসহ ন্যূনতম সরকারী পরিষেবা গুলিতে অ্যাক্সেসের অভাব রয়েছে। ‘এই বছরের শেষ নাগাদ খাদ্য নিরাপত্তার পরিস্থিতি আরও খারাপ হতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে।৮ মিলিয়ন লোকের সঙ্গে খাদ্য গ্রহণের ব্যবধান কমাতে এবং জীবন-জীবিকা বাঁচাতে জরুরি পদক্ষেপ নেয়া দরকার। তিনি এই সংখ্যাটিকে ‘হতবাক’ বলে বর্ণনা করেছিলেন।রাজনৈতিক অর্থনৈতিক ও আর্থিক সমস্যা এবং অনন্য জলবায়ু পরিস্থিতি এগুলি বর্তমানে আফ্রিকার রুটিভিত্তিক দেশ হিসাবে দেখা একটি দেশের মুখোমুখি খাদ্য নিরাপত্তাহীনতার ঝড়কে অবদান রাখে।
Loading...

No comments

Powered by Blogger.