নাবালিকার ধর্ষণের অভিযোগ দাখিল করতে সিপির দ্বারস্থ



 জয়ন্ত সাহা, আসানসোল :     নাবালিকার ধর্ষণের অভিযোগ দাখিল করতে গিয়ে থানা পুলিশের অসহোযোগিতায় সিপির দ্বারস্থ অভিযোগকারীরা ৷ ঘটনাটি ঘটেছে আসানসোল পুরনিগমের ৭৪ নং ওয়ার্ড তথা হিরাপুর থানার অন্তর্গত ইসিএলের পাটমোহনা কোলিয়ারির ৬নং ধাওড়াতে ৷ পেশায় দিনমজুর অশোক চৌধুরী জানিয়েছেন , তার চৌদ্দ বছর দুই মাস বয়সের ষষ্ঠশ্রেণির ছাত্রী নাবালিকা মেয়েকে অষ্টমীর রাতে মণ্ডপ থেকে বাড়ি ফেরার সময় একা পেয়ে স্থানীয় ইসিএল কর্মী বলদেভ রাজভর জোর করে নিজের আবাসনে টেনে নিয়ে গিয়ে ধর্ষণ করে ৷ এর পর ওই নাবালিকাকে বিষয়টি বাড়িতে অভিভাবকদের জানালে ভিডিও ভাইরাল করে দেওয়ার ও প্রাণ নাশের হুমকি দেয় ৷ সেই ভয়ে নাবালিকা প্রথমে বাড়িতে কিছুই বলতে রাজি হয়নি ৷ তবে ঘটনার ৮-১০ দিন পরে অশোক চৌধুরি মেয়েকে জিজ্ঞাসা করে সব জানতে পারে ৷ সেই মত হিরাপুর থানায় অভিযোগ জানাতে গেলে ,পুলিশ তাকে লিখিত ভাবে অভিযোগ করতে বলে ৷ কিন্তু পেশায় দিন মজুর অশোক পড়াশোনা না জানার কারণে সেদিন লিখিত অভিযোগ না করেই ফিরে যেতে হয় ৷ যদিও মৌখিক ভাবে সমস্ত বিষয়টিই পুলিশ আধিকারিকদের হয় ৷ কিন্তু দীর্ঘদিন পেরিয়ে যাওয়ার পরেও পুলিশি তদন্তে বিশেষ কোনো অগ্রগতি না হওয়ায় রবিবার শহরের মানবাধিকার সংগঠনের দ্বারস্থ হয় অশোক চৌধুরি ও তার পরিবার ৷ এরপর মানবাধিকার সংগঠনের পক্ষ থেকে অশোক চৌধুরি ও তার পরিবারকে সাথে নিয়ে আসানসোল সিপি অফিসে পুলিশি নিষ্ক্রিয়তার অভিযোগ তুলে ও তদন্তের অগ্রগতির স্বার্থে লিখিত অভিযোগ জমা দিতে যাওয়া হয় ৷ তবে সিপি অফিস থেকে অভিযোগকারীদের পুনরায় হিরাপুর থানায় ফেরত পাঠানো হলে পস্কো আইনে অভিযোগ গ্রহণ করা হয় ৷ তবে পুলিশি নিষ্ক্রিয়তার অভিযোগ অস্বীকার করে হিরাপুর থানার পক্ষ থেকে জানানো হয় মৌখিক অভিযোগের ভিত্তিতেই বলদেভ রাজভরের সন্ধান চালাতে এলাকায় তিনবার পুলিশ পৌঁছালেও অভিযুক্ত রাজভরকে পাওয়া যায়নি ৷ সে বর্তমানে পলাতক ৷
Loading...

No comments

Powered by Blogger.