ইরাকের সেনাবাহিনী বিক্ষোভকারীদের ওপর গুলি না ছোড়ার নির্দেশ দিয়েছে


বাগদাদে সরকারবিরোধী বিক্ষোভ ও সহিংসতায় নতুন করে আরও কমপক্ষে তিনজন নিহত হয়েছে।  বিক্ষোভকারীদের ওপর পুলিশ গুলি ছুড়লে আরও ১৭ জন আহত হয়। ইরাকের মানবাধিকার সংস্থা এ তথ্য নিশ্চিত করেছে।
ইরাকের তাহরির স্কোয়ারে গত কয়েক সপ্তাহ ধরেই বিক্ষোভ চলছে। গত অক্টোবর থেকে মূলত দেশটির প্রশাসনের ব্যাপক দুর্নীতি, বেকারত্ব, জীবন-যাপনের ব্যয়বৃদ্ধিসহ নীতি নির্ধারণের ক্ষেত্রে অন্য দেশের সরকারের ওপর নির্ভরশীলতার প্রতিবাদে ইরাকের রাস্তায় নামেন হাজারো বিক্ষোভকারী।
এদিকে দিন দিন এই বিক্ষোভ সহিংস হয়ে উঠেছে। বিক্ষোভকারীদের প্রতিহত করতে পুলিশ সরাসরি গুলি ছুড়ছে। এতে এখন পর্যন্ত বহু হতাহতের ঘটনা ঘটেছে। ২০০৩ সালে সাদ্দাম হুসেইনের পতনের পর এটাই ইরাকের সবচেয়ে বড় সরকারবিরোধী বিক্ষোভ।
ইরাকের সেনাবাহিনীর এক মুখপাত্র জানিয়েছেন, বিক্ষোভকারীদের ওপর গুলি না ছোড়ার জন্য নিরাপত্তা বাহিনীকে নির্দেশ দেয়া হয়েছে। মেজর জেনারেল আবদুল করিম খালাফ এক সংবাদ সম্মেলনে বলেন, বিক্ষোভকারীদের ওপর তাজা গুলি ছুড়তে নিষেধ করা হয়েছে। এদিকে গত সোম ও মঙ্গলবার নিরাপত্তা বাহিনীর গুলিতে ১৩ বিক্ষোভকারী নিহত হয়।
দিনব্যাপী সরকারি বাহিনীর গুলিতে আটজন নিহত হয়। এরপর  রাতে আরও অন্তত পাঁচ বিক্ষোভকারী নিরাপত্তা বাহিনী গুলিতে প্রাণ হারিয়েছেন।


Loading...

No comments

Powered by Blogger.