১২১ বছর আগের একটি ছবিতে দেখা যাচ্ছে গ্রেটা থানবার্গকে


সুইডিশ কিশোরী গ্রেটা থানবার্গ পরিবেশ সুরক্ষার দাবিতে আন্দোলন করে বিপুল পরিচিতি পেয়েছে। অল্প কয়েকদিনের মধ্য বিশ্বের উষ্ণতা বৃদ্ধি ও পরিবেশের ভারসাম্য রক্ষায় প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়ার দাবিতে আন্দোলনকারীদের মুখপাত্রে পরিণত হয়েছে ছোট্ট মেয়েটি। প্রতিনিয়তই তার ছবি ছাপা হচ্ছে বিশ্বের নামি-দামি অসংখ্য পত্রিকা-ম্যাগাজিনে। তবে, সম্প্রতি তাকে নিয়ে আলোচনা কিছুটা ভিন্ন কারণে। গ্রেটার বয়স মাত্র ১৬ বছর। অথচ ১২১ বছর আগের একটি ছবিতে স্পষ্ট দেখা যাচ্ছে তার মুখাবয়ব!আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমের তথ্যমতে, যুক্তরাষ্ট্রের ওয়াশিংটন বিশ্ববিদ্যালয়ের আর্কাইভে সংরক্ষিত ১৮৯৮ সালে কানাডার একটি স্বর্ণখনিতে তোলা ওই ছবিতে দেখা যায়, খনির মুখে তিনটি শিশু বসে আছে। এর মধ্যে একটি শিশুর চেহারা ঠিক গ্রেটার মতো।ছবিটি ইতোমধ্যেই সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ব্যাপক আলোড়ন সৃষ্টি করেছে। অনেকের মতে বলছেন, এ সুইডিশ কিশোরী মূলত ‘টাইম ট্রাভেলার’। ভবিষ্যতের পরিবেশ বিপর্যয়ের হাত থেকে পৃথিবীকে রক্ষায় অতীতে ফিরে এসেছেন তিনি!এক টুইটার ব্যবহারকারী কৌতুক করে বলেন, হয়তো সে ভবিষ্যৎ থেকে এসেছে ইতিহাসের যথার্থ মুহূর্তে, যাতে পরিবেশ বিপর্যয় রোধ করা যায়।আরেকজন বলেন, ঘটনা যাই হোক না কেন, সে (গ্রেটা) আসলেই একজন সময় পরিব্রাজক এবং সে ভবিষ্যৎ থেকে এসেছে আমাদের সতর্ক করার জন্য। এটিই একমাত্র ব্যাখ্যা হতে পারে।অবশ্য কেউ কেউ বলছেন, ছবিটি ফটোশপে তৈরি। 


Loading...

No comments

Powered by Blogger.