চলন্ত বিমানে সন্তানের জন্ম


ভূপৃষ্ঠ থেকে বিমানটি তখন ৪২ হাজার ফুট ওপরে। হঠাৎ বিমানবালা দেখতে পান, এক যাত্রী প্রসব বেদনায় কাতরাচ্ছেন। সঙ্গে সঙ্গে ওই নারীর কাছে ছুটে আসেন তিনি। এত উঁচু থেকে দ্রুত বিমানের অবতরণের কোনো সুযোগ নেই। তাই বিমানবালা ও অন্য যাত্রীদের সহযোগিতায় কন্যা সন্তানের জন্ম দেন ওই নারী। ঘটনাটি ঘটেছে তুরস্কের একটি ফ্লাইটে। বোয়িং-৭৩৭ নামে বিমানটি গিনির রাজধানী কোনাক্রি থেকে ওগাডুগু হয়ে ইস্তাম্বুলে যাচ্ছিল। সন্তান জন্ম দেওয়ার পর ফ্লাইটটি বুরকিনা ফাসোর রাজধানীতে অবতরণ করে। পরে মা ও শিশুকে হাসপাতালে নেওয়া হয়েছে। বর্তমানে তাঁরা দুজন সুস্থ আছে। ওই শিশুটির নাম রাখা হয়েছে কাদিজু। ওই নারীর নাম নাফি দিয়াবি। তিনি ২৮ সপ্তাহের অন্তঃসত্তা ছিলেন। টার্কিশ এয়ারলাইন্স বিবৃতিতে জানিয়েছে, বিমানটি ৪২ হাজার ফুট উঁচু দিয়ে চলছিল। হঠাৎ বিমানবালা দেখতে পান, নাফি দিয়াবি নামের ওই নারী প্রসব বেদনায় কাতরাচ্ছেন। এ সময় তাঁরা দ্রুত ওই নারীকে সহযোগিতার জন্য এগিয়ে আসেন। এরপর বিমানেই ওই নারী এক কন্যাসন্তানের জন্ম দেন। এরপর ওই শিশুকে কোলে নিয়ে আনন্দ করতে থাকেন বিমানবালারা। অধিকাংশ বিমান কর্তৃপক্ষই ৩৬ সপ্তাহ পূর্ণ না হওয়া গর্ভবতী নারীদের বিমানে ভ্রমণের সুযোগ দিয়ে থাকে। তবে এ ক্ষেত্রে চিকিৎসকের কাছ থেকে ২৮ সপ্তাহ আগেই একটি পত্র নিতে হয়, যেখানে সন্তান জন্মের একটি সম্ভাব্য তারিখ দেওয়া থাকে। 
Loading...

No comments

Powered by Blogger.