উপ-নির্বাচনের ফল প্রকাশের পরেই আক্রান্ত বিজেপি কর্মী :উত্তেজনা



বাঁকুড়া : উপ-নির্বাচনের ফল বের হতেই সোনামুখীতে আক্রান্ত বিজেপি কর্মীরা । গতকাল রাজ্যের ৩বিধানসভা কেন্দ্রে উপ-নির্বাচনের ফল প্রকাশিত হয় । আর ফল প্রকাশিত হতেই ফের আগ্রাসী হয়ে উঠল তৃণমূল কর্মীরা ,  আক্রান্ত বিজেপি কর্মীরা ।  ঘটনাটি ঘটেছে বাঁকুড়া জেলার সোনামুখী থানার মানিকবাজার পঞ্চায়েতের কাষ্ঠসাঙ্ঘা গ্রামে ।  চারজন বিজেপি কর্মীকে মারধরের অভিযোগ উঠল তৃণমূল কর্মীদের বিরুদ্ধে । বিজেপি সুত্রে খবর , তৃণমূলের মারে তাদের মোট চারজন বিজেপি কর্মী আহত হয়েছেন । আহতদের সোনামুখী হাসপাতালে ভর্তি করা হলে দুজনকে প্রাথমিক চিকিৎসার পর ছেড়ে দেওয়া হয় এবং বাউল খাওয়াস নামে এক বিজেপি কর্মীকে বাঁকুড়া সম্মিলনী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে রেফার করা হয় । এবং একজন এই মুহূর্তে সোনামুখী হাসপাতালে ভর্তি রয়েছে ।

বিজেপি নেতা শান্ত পাল বলেন , গতকাল তিন বিধানসভা কেন্দ্রে উপনির্বাচনের ফল বেরোনোর পর তৃণমূল কর্মীরা অতি উৎসাহিত হয়ে বিজেপি কর্মীদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে বোমা ফাটায় ,  বাজনা বাজায় এবং রাতে বিজেপির যত পতাকা ছিল সব ছিঁড়ে ফেলে দেয় । সকালবেলায় বিজেপি কর্মীরা উঠে দেখে তাদের পতাকা গুলো ছিড়ে মাটিতে পড়ে রয়েছে । তখন বিজেপি কর্মীরা তৃণমূল কর্মীদের একথা বললে তৃণমূল কর্মীরা জড়ো হয়ে আচমকা বিজেপি কর্মীদের মারধর করে । টাঙ্গী রড দিয়ে মারধর করা হয় বলেও তিনি জানান । তবে প্রশাসনের ওপর আস্থা রেখে তিনি বলেন প্রশাসন দোষীদের উপযুক্ত শাস্তির ব্যবস্থা করবে ।

মন্ত্রী শ্যামল সাঁতরা বলেন ,  গতকাল তিনটি বিধানসভা উপনির্বাচনে তৃণমূল কংগ্রেস জয়যুক্ত হওয়ার পর আমাদের দলীয় কর্মীরা এবং নেতৃত্বরা বিভিন্ন অঞ্চলে বাজারে গিয়ে সাধারণ মানুষকে মিষ্টি বিতরণ করেন । আজকে সকালের দিকে মানিকবাজার অঞ্চলের সভাপতি প্রবীর গড়াই এবং তার ছেলে যখন মাঠে কাজ করার জন্য বেরিয়ে ছিল , তখন অতর্কিতভাবে বিজেপির বেশ কিছু দুষ্কৃতী এই অঞ্চল সভাপতির উপর আক্রমণ করে । এবং তার ছেলেকে মারধর করে । এই মুহূর্তে সে হসপিটালে ভর্তি রয়েছে  । সুতরাং বিজেপি ভাবছে আমরা নতুন করে সন্ত্রাস তৈরি করে এলাকায় অশান্তির বাতাবরণ তৈরি করব তাহলে তারা মূর্খের স্বর্গে বাস করছে । তবে এই ঘটনার সঙ্গে তৃণমূল কংগ্রেস কোনোভাবেই জড়িত নয় বলেই তিনি দাবি করেছেন ।

সোনামুখী পৌরসভার চেয়ারম্যান সুরজিৎ মুখার্জি বলেন , একটা সময় মানিকবাজার সিপিএমের হার্মাদ দের আঁতুড়ঘর ছিল ।লোকসভা ভোটের পর সেই হার্মাদরা উল্লসিত হয়ে গেরুয়া জল্লাদ হয়েছে । ওই গেরুয়া জল্লাদরা গতকাল আমাদের কর্মীদের মারধর করেছে । মানুষ গতকাল গালে থাপ্পর দিয়েছে এবারে জল্লাদদের ব্যবস্থা আমরা করে দেবো । যেমন 2011 পর সব ইঁদুরের গর্তে ঢুকে গিয়েছিল আবার সেই জল্লাদদের ইন্দুরের গর্তে ঢুকতে হবে ।
Loading...

No comments

Powered by Blogger.