খুনের অভিযুক্তর খোঁজে বিজেপির নেতার বাড়িতে পুলিশ!



জয়ন্ত সাহা, আসানসোল :  খুনের অভিযুক্তর খোঁজে বিজেপির নেতার বাড়িতে ঝাড়খন্ডের পুলিশ। ঘটনাটি পশ্চিম বর্ধমান জেলার জামুড়িয়া থানার অন্তর্গত পনিয়াটি এলাকায়।
ঝাড়খন্ড পুলিশ গোপন সুত্রে জানতে পেরেছে এক খুনি কে গাঢাকা দিয়ে রেখেছে জামুড়িয়ার বিজেপি নেতা সন্তোষ সিং। সেই সূত্র অনুয়ায়ী শুক্রবার ভোর ৪টে নাগাদ ঝাড়খন্ড ও জামুড়িয়া থানার পুলিশের যৌথ উদ্যোগে বিজেপি নেতা সন্তোষ সিং এর বাড়ি ঘিরে ফেলে। পরে পুলিশ সন্তোষ সিং কে জানান তার বাড়ি লাগোয়া বিজেপি পার্টী অফিসে এক খুনি কে আশ্রয় দিয়েছেন তিনি, এবং তাঁকে অফিস খুলতে বলা হয়। পুলিশের কথা মত পার্টী অফিস খুললে পুলিশ অভিযান চালিয়ে খুনের অভিযোগে অভিযুক্ত ব্যাক্তির একটি বাইক ও দুটি মোবাইল উদ্ধার করেছে ঝাড়খন্ড পুলিশ বলে জানা গেছে। তবে ওই দুটি মোবাইল।পুলিশ কোথা হতে পেল তিনি জানেননা বলে দাবি করেন।

এই বিষয়ে বিজেপি নেতা সন্তোষ সিং জানান, চিত্তরঞ্জন এলাকার কার্তিক ধীবর নামে এক ব্যাক্তির সাথে নির্বাচনের প্রচারের সময় তার পরিচয় হয়েছিল। কার্তিক ধীবর এক জন বিজেপি কর্মী বলে জানতাম। সেই সময় কার্তিকের টাকার প্রয়োজন ছিল বলে আমাকে বাইকটি ৩০ হাজার টাকার বিনিময়ে বিক্রি করেছিল। সেই সময় তার আধার ও ভোটার কার্ড আমি নিয়েছিলায়। কার্তিক ধীবর খুনের আসামি আমার জানাছিলনা। এমনকি সে আমার আছে এখানে আসেনি। টাকা দিয়েই বাইকটি কিনেছিলাম। তিনি জানান পুলিশ ওই বাইকটি ও দুটি মোবাইল নিয়ে গেছে। তবে মোবাইল দুটি এখানে পাওয়া যায়নি বলে দাবি করেন তিনি।

আসানসোল কর্পোরেশনের মেয়র পারিষদ পূর্ণশশি রায় বলেন, মাননীয় মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বার বার বলে আসছেন ঝাড়খন্ড বিহার সহ বিভিন্ন রাজ্য থেকে বিজেপি নেতারা বহিরাগত নাম করা ক্রিমিনালদের এখানে নিয়ে আসে, যাতে তৃনমূলদের জব্দ করা যায় এবং তৃনমূলের ভাল ভাল নেতা কর্মীদের খুন করা যায়।
Loading...

No comments

Powered by Blogger.