সমুদ্রে গভীরে পিরামিডের সন্ধান


মিশর বা দক্ষিণ আমেরিকা নয়। এবার বাহামা তীরে ২টি পিরামিডের সন্ধান পাওয়া গিয়েছে। অনেকেই পিরামিড দুটিকে রহস্যজনক পিরামিড বলে ধারণা করছেন। কিন্তু, তা সত্যি সত্যিই পিরামিড কিনা, এখনো চূড়ান্ত হয়নি। ফলে আসল রহস্য জানা যায়নি।
তবে বস্তুটির আকার আকৃতি পিরামিডের মতোই মনে হচ্ছে। এ বিষয়টি নিয়ে ‘সিকিওর টিম ১০’ ইউটিউব চ্যানেলে একটি ভিডিও পোস্ট করেছেন। গুগল আর্থের সাহায্যে এ পিরামিড জাতীয় বস্তুর সন্ধান পেয়েছে তারা।
এ ব্যাপারে তাদের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, নিউ প্রভিন্স আইল্যান্ডের কাছে সমুদ্রে এই পিরামিড আকৃতির বস্তুর খোঁজ পেয়েছে তারা। আর স্থানটি ফ্লোরিডা থেকে বেশি দূরে নয়। খুব সহজেই ধরা পড়েছে এই পিরামিডের লাইনগুলো। এটা প্রমাণ করে সবচেয়ে কাছের দ্বীপে অ্যাজটেকের মতো কিংবা ওই ধরনের কোনো এক প্রাচীন মানুষের বাস ছিল সেখানে। আর যে ছবিগুলো পাওয়া গেছে, সেগুলো দেখতে নিঃসন্দেহে প্রাচীন পিরামিডের মতো।
এখানে জেনে রাখা ভালো যে, সমুদ্রের মধ্যে কোনো কিছুই নষ্ট হয় না। কেননা, সমুদ্রের মধ্যে খোলা বাতাস নেই। ফলে মরিচা ধরা বা ক্ষতি হয়ে যাওয়ার আশঙ্কা থাকে না। তবে এই পিরামিড দুটির আকৃতি একই নয়। এর মধ্যে একটি গিজার পিরামিডের মতো, অন্যটি মায়া সভ্যতার চিচেন ইৎজার মতো।
এই প্রথমবার কোনো বস্তুকে পিরামিডের মতো দেখতে বলা হল, তেমন নয়। ২০১২ সালে মেরেল ভেরলাগ নামে এক বিজ্ঞানী ক্রিস্টাল পিরামিড আবিষ্কার করেছিলেন। গিজার পিরামিডের থেকে এটি ৩ গুণ বড়। সমুদ্রতল থেকে এটি ৬ হাজার ৫০০ ফিট উঁচু।



Loading...

No comments

Powered by Blogger.