'মহারাষ্ট্রবাসী ক্ষমতার দম্ভ মেনে নেয় না', বিজেপিকে শিবসেনা

Image result for bjp-shivsena

"মহারাষ্ট্রবাসী ক্ষমতার অহংকার মেনে নেয় না।" বিধানসভা নির্বাচনে আসনসংখ্যা কমতেই জোটসঙ্গী বিজেপিকে এভাবে হুঁশিয়ার করলো শিবসেনা। গতকাল ঘোষণা করা বিধানসভা নির্বাচনের ফল অনুযায়ী বিজেপি ও শিবসেনা জোট মহারাষ্ট্রে ক্ষমতা ধরে রাখলেও আসন সংখ্যা আগের তুলনায় অনেক কমেছে। যাকে শাসক দলের পক্ষে "অশনি সংকেত" বলেই মনে করছে শিবসেনা। শিবসেনার কাছে এই ফলাফল কখনোই "জন মহাদেশ" নয়।
আজ দলীয় মুখপত্র 'সামনা'-তে নির্বাচনের ফল বিশ্লেষণ করে বলা হয়েছে, "নির্বাচনের আগে বিজেপি যেভাবে এনসিপি-কে শেষ করে দিয়েছিল তাতে ভবিষ্যতে এই দলের অস্তিত্ব নিয়ে মানুষের মনে প্রশ্ন উঠেছিল। কিন্তু নির্বাচনে এনসিপি ৫০-এর বেশি আসনে জয়লাভ করেছে, অপরদিকে নেতৃত্বহীন কংগ্রেস জিতেছে ৪৪টি আসনে জিতেছে। এই ফলাফল ক্ষমতার অহংকার না দেখানোর জন্য শাসকদের উদ্দেশ্যে একটি সতর্কবাণী।"
Image result for bjp-shivsena

"বিজেপি ১২২(২০১৪) থেকে ১০৫টি(২০১৯) আসনে নেমে এসেছে, শিবসেনার আসনসংখ্যাও কমেছে (৬৩ থেকে ৫৬)। ২৫টি আসন ছোট ছোট দলগুলোর কাছে চলে গিয়েছে। এর অর্থ জনগণ বলছে সাবধান...যদি তুমি ক্ষমতার অহংকার দেখাও...", পত্রিকাতে বলা হয়েছে।
লোকসভা নির্বাচনে সাতারা কেন্দ্র থেকে এনসিপির টিকিটে জয়লাভ করেছিলেন ছত্রপতি শিবাজীর বংশধর উদয়নরাজে ভোসলে। এরপর তিনি বিজেপিতে যোগ দেন। এই কেন্দ্রের উপনির্বাচনে বিজেপির হয়ে প্রার্থী হয়েছিলেন তিনি। এনসিপি প্রার্থী শ্রীনিবাস পাটিলের কাছে ৮৩ হাজার ভোটে হেরে যান তিনি। এই প্রসঙ্গে শিবসেনার মুখপত্রে বলা হয়, "প্রধানমন্ত্রী সাতারাতে নির্বাচনের প্রচার করেছিলেন। মুখ্যমন্ত্রী ফড়নবিশ বলেছিলেন উদয়নরাজেজি বিজেপিতে আসায় ছত্রপতি শিবাজীর আশীর্বাদ এখন বিজেপির সাথে আছে। তা সত্ত্বেও উদয়নরাজেজি পরাজিত হলেন। এই পরাজয় থেকে শিক্ষা নেওয়ার আছে। ফড়নবিশ বলেন যে উনি শক্তিশালী কুস্তিগির ছিলেন কিন্তু শরদ পাওয়ার প্রমাণ করেছেন যে তিনি আরও বেশি শক্তিশালী। মহারাষ্ট্র ক্ষমতার অহংকার মেনে নেয় না।"
Loading...

No comments

Powered by Blogger.