বৃষ্টিতে জলমগ্ন গ্রাম,ঘরছাড়া গ্রামবাসী





মৌমিতা সিনহা, হুগলীঃ
টানা কয়েক দিনের বৃষ্টিতে জলমগ্ন হয়ে পরলো আরামবাগ মহকুমার বেশ কয়েকটি এলাকা।   হঠাৎ করে মুন্ডেশ্বরী নদী,  দামোদর ও রূপনারায়ন নদীতে জল বেড়ে যাওয়ায় ফলে  পুরশুড়ার বিস্তীর্ণ এলাকা জলমগ্ন হয়ে পড়ে ।বহু মানুষ গৃহহীন হয়ে পড়ে। জানা গেছে, পুড়শুড়া থানার অন্তর্গত শ্যামপুর, শ্রীরামপুর সহ বেশ কয়েকটি গ্রামে জল ঢুকে পড়ে । পুড়শুড়া আখেরি শ্রীরামপুরের দামোদর নদীর  জল ঢুকতে শুরু করেছে এলাকায়।বাঁধ মেরামতির কাজে নেমেছে স্থানীয় মানুষও প্রশাসননের আধিকারিকেরা। খানাকুলে সেচের খাল গুলিতে জল বেড়ে গিয়ে বিস্তীর্ণ কৃষিজমি প্লাবিত হয়েছে।একইসাথে

আতঙ্কে ভুগছেন খানাকুলের  বহু মানুষ। খানাকুলের নতিবপুর এলাকায় বাঁশের সেতু জলের তোরে ভেসে যাওয়ার ফলে বহু এলাকায় যাতায়াত করতে সমস্যা দেখা দিয়েছে । এমনকি  মুন্ডেশ্বরী ও রূপনারায়ণ নদীর পার্শ্ববর্তী গ্রামগুলির বাসিন্দা দের  কপালে চিন্তার ভাঁজ। নদী পাশে  বসবাসকারি কয়েকশো পরিবার বর্তমানে গৃহহীন হয়ে পড়েছে। বর্তমানে  তাদের বাসস্থান হয়ে উঠেছে রাস্তা। এলাকাবাসীদের  দাবি, পুড়শুড়া এলাকায় প্রশাসনের পক্ষ থেকে কোনও আগাম সতর্কবার্তা জারি করা হয়নি। যার ফলে তাদের সমস্যায় পড়তে হয়েছে । বহু জিনিসপত্র জলে ভেসে গেছে। নদীতে জল বেড়ে যাওয়ায় গৃহহীন বহু পরিবার। আতঙ্কে প্রহর গুনছেন এলাকার মানুষ। এই ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে গোটা আরামবাগ মহকুমা জুড়ে।তবে প্রশাসনের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে সমস্ত বিষয়টির ওপর নজরদারি চালানো হচ্ছে।জানা গেছে ,কয়েকদিন আগে ডিভিসি থেকে ৫৬ হাজার কিউসেক, পঞ্চাত থেকে ২০ হাজার ও মাইথন থেকে ৪৫ হাজার কিউসেক জল ছাড়া হয়। বিভিন্ন জায়গায় আগাম সতর্কবার্তা জারি করে প্রশাসন। বন্ধ করে দেওয়া হয় ফেরিঘাট।
Loading...

No comments

Powered by Blogger.