গুজরাটে উপনির্বাচনে দলের খারাপ ফলের নেপথ্যে অন্তর্ঘাতের আশঙ্কা মোদী-শাহ’র


Image result for modi shah tensed

মহারাষ্ট্র-হরিয়ানায় বিধানসভা ভোট এবং গোটা দেশের সঙ্গে গুজরাতে ৬ টি আসনে উপ-নির্বাচন হয়েছিল। যেখানে ৩ টি করে আসন জিতেছে বিজেপি ও কংগ্রেস। অর্ধেক আসন জিতলেও, এই ফল গভীর চিন্তায় ফেলেছে বিজেপি নেতৃত্বকে। গুজরাত উপ-নির্বাচনের ফলের বিশ্লেষণ করে রাজনৈতিক বিশেষজ্ঞদের ধারনা, ৩ টি আসন হারার পিছনে রয়েছে দলের একাংশের অন্তর্ঘাত। এবং এই অন্তর্ঘাত সম্পর্কে ওয়াকিবহাল বিজেপির দিল্লির নেতৃত্বও। তাঁরা বলছেন, ৩ টি আসন জয়ের পিছনে যত না কংগ্রেসের কৃতিত্ব, তার চেয়ে বেশি হাতযশ বিজেপির।
Image result for bijoy rupani
রাধানপুর, বায়াড এবং থারাড কেন্দ্রে বিজেপি প্রার্থীদের হারের নেপথ্যে দলেরই একাংশের হাত রয়েছে, এ ব্যাপারে নিশ্চিত মোদী-অমিত শাহ। সদ্য সমাপ্ত উপ-নির্বাচনে অন্তর্ঘাতের নেপথ্যে মুখ্যমন্ত্রী রুপানিরই হাত থাকতে পারে বলে মনে করছে বিজেপির একাংশ। গুজরাত বিজেপির একাংশের বক্তব্য, এমনটা হওয়ার কথা নয়। আবার অন্য একটি অংশের দাবি, রুপানি বিরোধীদের হাতযশেই ৩ টি আসন হাতছাড়া হয়েছে বিজেপির। যাতে রুপানিকে চাপে রাখা যায়।
Image result for bijoy rupani modi amit shah

এই প্রেক্ষিতেই হাওয়ায় ভাসছে ৩ টি জল্পনার কথা, যে প্রকাশিত হয়েছে আহমেদাবাদ মিরর-এর প্রতিবেদনে। প্রথমত, বিজয় রুপানিকে মুখ্যমন্ত্রিত্বের পদ থেকে সরিয়ে রাজ্যসভার টিকিট দিয়ে দিল্লি পাঠিয়ে দেওয়া। দ্বিতীয়ত, কেন্দ্রীয় মন্ত্রী মনসুখ মাণ্ডব্যকে মুখ্যমন্ত্রী পদে এনে এখন থেকেই ২০২২ সালের প্রস্তুতিতে জোরকদমে লেগে পড়া এবং তৃতীয় তথা সবচেয়ে তাৎপর্যপূর্ণ হল, অমিত শাহকে গুজরাত ফিরিয়ে এনে মুখ্যমন্ত্রী করা। সূত্রের খবর, নরেন্দ্র মোদী নিজে বিশ্বাস করেন, অমিত শাহ দায়িত্ব নিলে ২০২২ সালে বিপুলভাবে জিতে বিজেপির ক্ষমতায় ফিরতে সমস্যা হবে না।
Loading...

No comments

Powered by Blogger.