সাপটি নিজের লেজ নিজেই খাচ্ছিল

নিজেই নিজের লেজ গিলছে সাপটি। ছবি: সংগৃহীত

একটি সাপ নিজেই নিজের লেজ থেকে খেতে শুরু করলে শেষমেশ কী ঘটবে, যখন সে তার মাথার কাছে চলে আসবে? এ রকম এলোমেলো করে দেওয়া ধাঁধার কথা হয়তো অনেকেই শুনেছেন। কিন্তু, উদ্ভট সেই কল্পনাকে বাস্তবে পরিণত করেছে এক সাপ!
ভাবতেই পেট গুলিয়ে উঠছে? অথচ ঘটনা সত্য। সম্প্রতি যুক্তরাষ্ট্রের পেনসিলভেনিয়া অঙ্গরাজ্যে ফরগটেন ফ্রেন্ড রেপটাইল নামক এক স্যাঙ্কচুয়ারিতে (অভয়ারণ্য) এমন ঘটনা ঘটেছে। ওই ঘটনার একটি ভিডিও ভাইরাল হয়ে ছড়িয়ে পড়েছে নেটিজেনদের মধ্যে। আন্তর্জাতিক একাধিক সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত হয়েছে এ খবর।
ওই ভিডিওতে দেখা যায়, কিংস্নেক প্রজাতির একটি সাপ নিজের লেজে কামড় বসিয়ে খেয়ে ফেলার চেষ্টা করছে। সাপটির চোয়াল থেকে লেজ ছাড়ানোর চেষ্টা করছেন স্যাঙ্কচুয়ারির সর্প-বিশারদ জেসে রোথাকার।
আজব এ ঘটনা প্রসঙ্গে রোথাকার বলেন,এক জনসংযোগ কর্মসূচির প্রস্তুতিকালে স্যাঙ্কচুয়ারির উদ্ধারকর্মীরা খেয়াল করে যে ক্রনাস নামে একটি কিংস্টন সাপ নিজের লেজ খাওয়ার চেষ্টা করছে। এ স্যাঙ্কচুয়ারির ১৫ বছরের ইতিহাসে এমন ঘটনা এই প্রথম।
ভিডিওতে আরও দেখা যায়, শেষমেশ অনেক ঝক্কি সামলে সাপটিকে নিজের লেজ খাওয়া থেকে বাঁচান রোথাকার। ফেসবুকে এরই মাঝে ভিডিওটি ২ লাখেরও বেশি বার দেখা হয়েছে। এসেছে শত শত কমেন্ট।
একজন লিখেছেন- বোকার হদ্দ সাপ। আরেকজন লিখেছেন- উদ্ভট!
রোথাকার জানান, কিংস্টন সাপ অন্য প্রজাতির সাপ খায়, এমন ঘটনা আছে। র‍্যাটল স্নেক এমনকি কপারহেডের মতো বিষাক্ত সাপকেও এটি অনায়াসে খেয়ে ফেলে। কিন্তু নিজেকেই খাওয়ার ঘটনা বিরল।
এ ঘটনায় সমালোচকরা দাবি করছেন, সাপটি সম্ভবত ক্ষুধার্ত বা বিধ্বস্ত অবস্থায় ছিল। কিন্তু প্রত্যুত্তরে সে দাবি নাকচ করে দিয়ে রোথাকার বলেন, এমন কিছু হওয়ার কারণ নেই। সাপটিকে পর্যাপ্ত পরিমাণে খাবার ও পানীয় সরবরাহ করা হয়। এ ছাড়া অন্য সব সাপের মতো এটিরও বসবাসের জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা আছে।
‘এর খোলসে হজমকারি এনজাইমসৃষ্ট আগের ক্ষতচিহ্নও পাওয়া গেছে। এতে করে মনে হয়, এটি এর আগেও একাধিকবার নিজেকে গিলে ফেলে। এটি সম্ভবত ক্রনাসের বদভ্যাস। কখনো কখনো প্রাণীজগতে এ ধরনের উদ্ভট ঘটনা ঘটে। যেমন, কুকুরের নিজের লেজের পেছনে লাগা, বা সাপের ক্ষেত্রে নিজেই নিজের লেজ গিলে ফেলা

Loading...

No comments

Powered by Blogger.