সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রবলভাবে আসক্ত,বাধা দিলে আত্মঘাতী বাবা মায়ের একমাত্র সন্তান:চাঞ্চল্য!


 মালদা:   পড়াশোনা বাদ দিয়ে সারাদিন ফেসবুক, হোয়াটসঅ্যাপ। বাধা দিলে আত্মঘাতী বাবা মায়ের একমাত্র সন্তান। নাম পঙ্কজ সাহা, মাত্র ১৬ বছর বয়সে, সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রবলভাবে আসক্ত এই ছাত্রের প্রাণ অকালে চলে যাওয়ায় শোকের ছায়া মালদার গাজোল থানার গোল ঘর গ্রামে।
 পেশায় দিনমজুর  স্বপন সাহা ও তার স্ত্রী গৃহবধু সান্ত্বনা সাহার এক মাত্র ছেলে ছিল পঙ্কজ। কিছুদিন ধরেই সে দিন রাত মোবাইল নিয়ে ব্যস্ত থাকত। এমন কি এই মোবাইল আসক্তিতে সে স্কুলে যাওয়া পর্যন্ত বন্ধ করে দিয়ে ছিল। বাবা শ্রমিকের কাজ করে ছেলেকে লেখাপড়া শিখিয়ে মানুষ করতে চেয়ে ছিলেন। কিন্তু বাঁধ সাধল মোবাইল ফোন। ছেলেকে অনেক বুঝিয়েও কিছুতেই স্কুলে পাঠাতে পাড়েনি মা বাবা। দিন রাত ফেসবুক হোয়াটস অ্যাপ টুইটারে ব্যস্ত থাকত পঙ্কজ। সম্প্রতি কোনো এক মহিলার সঙ্গেও প্রেমের সম্পর্কে জড়িয়ে পড়ে। ইদানিং খাবার ঠিক মত খেত না সারাক্ষণ ফোন নিয়ে বসে থাকত। ছেলের এই অবস্থা দেখে কোনো মা কি ঠিক থাকতে পাড়ে। দিন তিনেক আগে পঙ্কজকে তার মা সান্ত্বনা দেবী প্রচন্ড বকাবকি  করে। এর পর দুদিন চুপচাপ ছিল পঙ্কজ। গতকাল রাতে বাড়িতে সবাই যখন ঘুমোচ্ছে সেই সময় বিষ খেয়ে ফেলে পঙ্কজ। বমির শব্দে বাড়ির লোকেদের ঘুমভেঙ্গে যায়। সঙ্গে সঙ্গে পান্ডুয়া গ্রামীণ হাসপাতালে নিয়ে গেলে অবস্থা সঙ্কট জনক থাকায় চিকিৎসক তাকে মালদা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তরিত করার কথা বলে।গভীর রাতে তাকে মালদা মেডিকেলে ভর্তি করা হলে রবিবার সকাল সাড়ে সাতটা নাগাদ পঙ্কজের মৃত্যু হয়।
Loading...

No comments

Powered by Blogger.