সৌদি নাগরিকসহ ৩৫০ বন্দীকে মুক্তি দিচ্ছে হুতিরা


শুভেচ্ছার নিদর্শন হিসেবে সৌদি আরবের তিন নাগরিকসহ ৩৫০ জনকে মুক্তি দিচ্ছে হুতিরা। সোমবার হুতিদের বন্দী বিষয়ক জাতীয় কমিটির প্রধান আব্দুল কাদের আল-মুরতাজা এক সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানিয়েছেন।
আব্দুল কাদের আল-মুর্তাজা বলেন, বন্দী মুক্তি দেয়ার মাধ্যমে আমরা সুইডেন চুক্তির প্রতি আমাদের প্রতিশ্রুতির কথা প্রমাণ করে দিতে চাই এবং আমরা অন্যদেরকেও একই রকমের পদক্ষেপ নেয়ার আহ্বান জানাব।

তিনি বলেন, যে সাড়ে তিনশ বন্দিকে মুক্তি দেয়া হবে তার মধ্যে সুইডেন চুক্তির সময় দেয়া তালিকার লোকজনও রয়েছে।

জাতিসংঘ এবং আন্তর্জাতিক রেডক্রস কমিটির তত্ত্বাবধানে হবে এসব বন্দিকে মুক্তি দেয়া হবে বলে আল-মাসিরা টেলিভিশন জানিয়েছে।

গত ডিসেম্বরে সুইডেনের রাজধানী স্টকহোমে শান্তি আলোচনা হয়েছিল। সে সময় পলাতক প্রেসিডেন্ট আব্দুর রাব্বু মানসুর হাদি সমর্থিত সরকারের সঙ্গে হুথিরা হুদাইদা বন্দরনগরীতে যুদ্ধবিরতি এবং যুদ্ধবন্দী বিনিময় নিয়ে একটি চুক্তি করেছিল।

এর আগে সৌদি নেতৃত্বাধীন সামরিক জোটের হামলা বন্ধের শর্তে দেশটির বিরুদ্ধে ক্ষেপণাস্ত্র ও ড্রোন হামলা বন্ধ করার প্রস্তাব দিয়েছে ইয়েমেনের ইরান-সমর্থিত হুতি বিদ্রোহীরা।

রবিবার হুতিদের যুদ্ধবিরতির এমন প্রস্তাবনাকে স্বাগত জানায় তেহরান।

গত শনিবার সৌদি আরবের ৫০০ সেনাকে হত্যা, দুই হাজার সেনাকে আটক ও সামরিক বাহিনীর যানবাহনের একটি বহরকে জব্দের কথা দাবি করেছে হুতি বিদ্রোহীরা।

৭২ ঘণ্টার ওই অভিযানে সৌদি আরবের ৫০০ সেনাকে হত্যা ও কয়েক হাজার সেনা সদস্য আটকের দাবি করেছে তারা।

রবিবার বিকালে ইয়েমেনের রাজধানী সানায় এক সংবাদ সম্মেলনে হুতি মুখপাত্র ব্রিগেডিয়ার জেনারেল ইয়াহিয়া সারি সৌদি আরবের বিরুদ্ধে পরিচালিত অভিযানকে ‘আল্লাহর পক্ষ থেকে বিজয়’ বলে অভিহিত করেন। ইয়েমেনে সৌদি আগ্রাসন শুরু হওয়ার পর থেকে সবচেয়ে বড় একটি সামরিক বিজয় হয়েছে বলে দাবি করেন তিনি।




Loading...

No comments

Powered by Blogger.