সাউদাম্পটনের বিপক্ষে লিস্টারের গোলবৃষ্টি




              সাউদাম্পটনের বিপক্ষে লিস্টারের গোলবৃষ্টি


সাউদাম্পটনের বিপক্ষে যেনো অতীত কোনো রাগেরই শোধ মেটালো লিস্টার সিটি। নব্বই মিনিটের ম্যাচে গুনে গুনে ৯ বার তাদের জালে বল প্রবেশ করালো ব্রেন্ডন রজার্সের দল। প্রকৃতির বৃষ্টির রাতে লিস্টারের খেলোয়াড়দের করা গোলবৃষ্টিও দেখল ফুটবল বিশ্ব।

ম্যাচের দশম মিনিটে সাউদাম্পটনের ভরা গ্যালারি নিস্তব্ধ করে দিয়ে প্রথম গোলটি করেছিলেন বেন চিলওয়েল। এর মিনিট দুয়েকবাদে লাল কার্ড দেখেন সাউদাম্পটনের মিডফিল্ডার রায়ান বার্ট্রান্ড।

দশজনের প্রতিপক্ষ পেয়ে যেনো চেপে বসে লিস্টার। একের পর এক আক্রমণে ব্যতিব্যস্ত করে তোলে সাউদাম্পটনের রক্ষণকে। ম্যাচের প্রথমার্ধে হয় আরও ৪টি গোল। এর মধ্যে জোড়া গোল আসে আলভারো পেরেজের পা থেকে। তার গোল দুইটি হয় ১৯ ও ৩৯ মিনিটে।

এছাড়া প্রথমার্ধে ম্যাচের দ্বিতীয় গোলটি করেন ইউরি তেলেমানস, ১৭ মিনিটে। এছাড়া জেমি ভার্ডি স্কোরশিটে নাম তোলেন প্রথমার্ধের একদম শেষদিকে, ৪৫ মিনিটের মাথায়।

দ্বিতীয়ার্ধে একই ঢঙে খেলতে থাকে লিস্টার। এবার ৫৭ মিনিটের মাথায় গোল করে নিজের হ্যাটট্রিক পূরণ করেন আলভারো পেরেজ। এক মিনিট পরেই জাল কাঁপিয়ে হ্যাটট্রিকের সম্ভাবনা জাগান তিনি। যা পূরণ হয় অতিরিক্তি যোগ করা সময়ে পাওয়া পেনাল্টি থেকে। মাঝে ৮৫ মিনিটে গোলবন্যায় নিজেকে শামিল করেন জেমস ম্যাডিসন।

সবমিলিয়ে জেমি ভার্ডি ও আলভারো পেরেজের করা হ্যাটট্রিকে ৯-০ গোলের বিশাল জয় পায় লিস্টার। ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে এতদিন ধরে সবচেয়ে বড় জয়ের রেকর্ড ছিলো ম্যানচেস্টার সিটির। ১৯৯৫ সালে ইপসউইচকে ৯-০ গোলে হারিয়েছিল তারা। এবার তাদের পাশে বসলো লিস্টার।


এ জয়ের পর পয়েন্ট টেবিলেও এগিয়েছে ব্রেন্ডন রজার্সের দল। ১০ ম্যাচে ৬ জয় ও ২ ড্রতে ২০ পয়েন্ট নিয়ে তাদের অবস্থান দ্বিতীয়। এক ম্যাচ কম খেলে ২৫ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে অবস্থান করছে লিভারপুল।
Loading...

No comments

Powered by Blogger.