আন্তর্জাতিক স্তরে দৃষ্টিহীনদের জুডো প্রতিযোগিতায় সোনা জয়ী অমিত যাদব



জয়ন্ত সাহা,আসানসোল:   আসানসোল পুরনিগমের ১০৩ নং ওয়ার্ড তথা কুলটি বিড়ালা পাড়ার বাসিন্দা অমিত কুমার যাদব (২৩) দৃষ্টিহীনদের জুডো প্রতিযোগিতায় রাজ্য স্তরে ২০১৭ সালে সোনা , ২০১৮ সালে জাতীয় স্তরের প্রতিযোগিতায় রুপো ও ২০১৯ এ আন্তর্জাতিক স্তরে পুনরায় সোনা জয়ী হয়ে রাজ্যবাসীর নাম উজ্জ্বল করেছে এরই মধ্যে ৷ বর্তমানে অমিত কলকাতার রামকৃষ্ণ মিশন ব্রেইল একাডেমিতে পড়াশুনো করে ৷ তবে অমিতের পারিবারিক জীবন মোটেই আর্থিক ভাবে সচ্ছল নয় ৷ অমিতের বাবা ভোলা যাদব সামান্যই একজন ঝালমুড়ি বিক্রেতা ৷ কুলটি উচ্চমাধ্যমিক স্কুলের সামনে ঝালমুড়ি বিক্রি করে পরিবারের সারা মাসে আয় মাত্র ২-৩ হাজার টাকা ৷ অথচ অমিতের পরিবারে ভাই-বোন মা- বাবা মিলিয়ে সদস্য সংখ্যা ৫ জন ৷ অমিত জন্ম থেকেই দৃষ্টিহীন ছিলোনা ৷ ৭ বছর বয়েসে স্কুল থেকে ফিরে টিভির অ্যান্টেনা খারাপ হয়ে যাওয়ায় তা নিজে হাতে সারাতে গিয়ে যান্ত্রিক গোলোযোগে বিষ্ফোরণের কারণে দুটি চোখের দৃষ্টিশক্তি চলে যায় ৷ এরফলে অমিতের চিকিৎসা চালাতে গিয়ে পরিবারটি আরো বেশি আতান্তরে পড়ে ৷ তবে শৈশবে অমিতের প্রতিভার বিকাশে কুলটির স্থানীয় ব্যক্তিরা ও মাদার ফাউণ্ডেশন নামের এক স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা অমিতের পড়াশুনোর খরচ বহন করতে রাজি হয় ৷ এরপর অমিত আসানসোলের ব্রেইল স্কুলে পড়াশুনো শুরু করে ৷ পরে কলকাতার রামকৃষ্ণ মিশন ব্রেইল স্কুলে উচ্চমাধ্যমিক স্তরের পড়াশুনো শুরু হয় ৷ বর্তমানে রাজ্য ও আন্তর্জাতিক স্তরে জুজিৎসুতে সাফল্য পাওয়া অমিত স্বাভাবিক জীবনে ফিরতে ও পরিবারের অনটন দূর করতে তার একটি চাকরির আবেদন রেখেছে সরকারের কাছে ৷
Loading...

No comments

Powered by Blogger.