অর্থনীতিতে বাঙালির নোবেল জয়



বিশ্ব থেকে দারিদ্র্য দূরীকরণে এক অসামান্য পরীক্ষামূলক পদ্ধতির জন্য চলতি বছর অর্থনীতিতে নোবেল পুরস্কার পেয়েছেন এক ভারতীয় বংশোদ্ভূত মার্কিন বাঙালি অধ্যাপকসহ তিন অর্থনীতিবিদ। সোমবার স্টকহোমে দ্য রয়্যাল সুইডিশ একাডেমি অব সায়েন্সেস এ পুরস্কার ঘোষণা করে।
নোবেল কমিটির পক্ষ থেকে জানানো হয়, দারিদ্র্য লাঘবে পরীক্ষামূলক গবেষণার কারণে ভারতের অভিজিত ব্যানার্জি, ইসথার ডাফলো এবং মাইকেল ক্রেমারকে অর্থনীতিতে নোবেল পুরস্কার দেয়া হয়েছে
ভারতীয় বংশোদ্ভূত মার্কিন নাগরিক অভিজিত ব্যানার্জি যুক্তরাষ্ট্রের ম্যাসাচুসেটস ইনস্টিটিউট অব টেকনোলজির (এমআইটি) অধ্যাপক। এছাড়া ফরাসী বংশোদ্ভূত মার্কিন নাগরিক ইসথার ডাফলোও এমআইটির অধ্যাপক এবং অপর বিজয়ী মাইকেল ক্রেমার যুক্তরাষ্ট্রের নাগরিক ও হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক।
ভারতে জন্ম নেয়া ৫৮ বছর বয়সী অভিজিত ব্যানার্জি যুক্তরাষ্ট্রের হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যায়ল থেকে পিএইচডি শেষে এআইটিতে অ্যধাপনা করছেন। অপরদিকে প্যারিসে জন্ম নেয়া ৪৭ বছর বয়সী ইসথার ডাফলো এমআইট থেকে পিএইচডি শেষ সেখানেই পড়াচ্ছেন।
অর্থনীতিতে নোবেল পুরস্কার বিজয়ী প্রথম বাঙালী হলেন ভারতীয় অর্থনীতিবিদ অমর্ত্য সেন। দুর্ভিক্ষ, মানব উন্নয়ন তত্ত্ব, জনকল্যাণ অর্থনীতি ও গণদারিদ্রের অন্তর্নিহিত কার্যকারণ বিষয়ে গবেষণা এবং উদারনৈতিক রাজনীতিতে অবদান রাখার জন্য ১৯৯৮ সালে তিনি অর্থনৈতিক বিজ্ঞানে নোবেল পুরস্কার লাভ করেন।
নোবেল বিজয়ী ফরাসি বংশোদ্ভূত মার্কিন অধ্যাপক ইসথার ডাফলো অভিজিতের স্ত্রী। দ্বিতীয় নারী অর্থনীতিবিদ হিসেবে অর্থনীতিতে নোবেল পেলেন তিনি। সর্বকনিষ্ঠ অর্থনীতিবিদ হিসেবে অর্থনীতিতে নোবেল পাওয়ার কৃতিত্বও দেখালেন ডাফলো। গত ৫০ বছরে কোনো নারী অর্থনীতিতে নোবেল পায়নি।
Loading...

No comments

Powered by Blogger.