তৃণমূল-বিজেপি সংঘর্ষ!আহত এক তৃণমূল কর্মী



মালদাঃ তৃণমূল-বিজেপি সংঘর্ষে উত্তেজনা ছড়ালো মহদীপুর সীমান্ত এলাকায়। ঘটনায় এক তৃণমূল কংগ্রেস কর্মী কে ধারালো হাসুয়া দিয়ে কুপিয়ে খুন করার চেষ্টার অভিযোগ ওঠে। তার বাঁ পায়ে এবং গোটা শরীরে আঘাত লাগে। তবে এই অভিযোগ ভিত্তিহীন বলে দাবি করেছে বিজেপি। পুরো ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ।
জানা গেছে আহত তৃণমূল কর্মীর নাম আস্তিক ঘোষ। বয়স 27। মহদীপুর PHE দপ্তরে কাজ করেন তিনি। অভিযোগ প্রতিদিনের মতো শনিবারও ডিউটি করছিল আস্তিক। অভিযোগ ঠিক সেই সময় স্বাধীন ঘোষ, সমীর ঘোষের নেতৃত্বে টানু ঘোষ, কালু ঘোষ, আমিত ঘোষ সহ
বেশ কয়েকজন তার ওপর হামলা করে। কিন্তু কোনমতে প্রাচীর টপকে পালিয়ে আসে আস্তিক। তার বাঁ পায়ে হাসুয়া দিয়ে কোপ মারে তারা। দশটি সেলাই পড়েছে পায়ে। পরে রক্তাক্ত অবস্থায় তাকে পরিবারের লোকেরা উদ্ধার করে রাত্রেই মালদা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে আসে। এই বিষয়ে আহতের মা শেফালী ঘোষ জানান, কি কারনে হামলা বুঝতে পারছিনা। তার ছেলে কোন রকম ঝামেলায় থাকে না। তারা তৃণমূল দল করে। যারা হামলা করেছে তারা বিজেপি করে। তাহলে কি রাজনৈতিক হামলার শিকার আস্তিক। এই বিষয়ে কিছু বলতে পারেননি তার মা। একটি সূত্রে জানা গেছে মহদীপুর সীমান্ত এলাকায় দীর্ঘদিন ধরে দুই গোষ্ঠীর মধ্যে ঝামেলা। তার জেরেই এই ঘটনা।
এই বিষয়ে মালদা জেলা পরিষদের শিক্ষা কর্মাধ্যক্ষ প্রতিবাদ জানান, স্থানীয় এক বিজেপি নেতার নির্দেশে তার দলবল তাদের এক কর্মীর উপর হামলা চালায়। তার পায়ে এগারোটা সিলাই পরে। শুধু তাই নয় প্রতিদিনই মহিদপুর সীমান্ত এলাকায় তাদের কর্মীদের ওপর হামলা চালাচ্ছে বিজেপি। স্থানীয় পঞ্চায়েত কর্মাধ্যক্ষ জগন্নাথ ঘোষের বাড়িতে ঢুকে ভাঙচুর চালায় তারা বলেও অভিযোগ করেন তৃণমূল নেত্রী প্রতিভা সিংহ। তারা ইতিমধ্যেই থানায় বিষয়টি লিখিতভাবে জানিয়েছে। পুলিশ বিষয়টি তদন
Loading...

No comments

Powered by Blogger.