সুপ্রিম কোটের রায়কে ভুল বললেনঃ বরিস জনসন


যুক্তরাজ্যে পার্লামেন্ট স্থগিতকে অবৈধ রায় দেওয়ার সমালোচনা করেছেন এই সিদ্ধান্ত নেওয়া প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন। তিনি বলেন, জাতীয় এই বিতর্কের সময় রাজনৈতিক প্রশ্নে এমন রায় দেওয়া সুপ্রিম কোর্টের ভুল হয়েছে। এর আগে বরিস জনসনের সিদ্ধান্তকে অবৈধ রায় দিয়েছিলো দেশটি সর্বোচ্চ আদালত।
চুক্তিহীন ব্রেক্সিট ঘিরে অচলাবস্থা কাটাতে ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসনের পার্লামেন্ট স্থগিতের সিদ্ধান্তকে বেআইনি বলে রুল জারি করেছেন দেশটির সর্বোচ্চ আদালত। স্থগিতাদেশ অকার্যকর হওয়ায় পার্লামেন্টে ফিরতে শুরু করেন ব্রিটিশ এমপিরা। এমনকি তার পদত্যাগের দাবিও ওঠে। বিরোধী দলীয় নেতা জেরেমি করবিন বলেন, জনসন প্রধানমন্ত্রী হওয়ার যোগ্যতা হারিয়েছেন। তার অবিলম্বে পদত্যাগ করা উচিত।
তবে বরিস জনসন ছোটদলগুলোকে সাধারণ নির্বাচনের জন্য আস্থাভোটেরও আহ্বান জানান। সুপ্রিম কোর্ট যখন এমন রায় ঘোষণা করেন তখন জাতিসংঘ সাধারণ পরিষদের ৭৪ তম অধিবেশনে অংশ নিতে নিউইয়র্কে জাতিসংঘের সদর দফতরে ছিলেন বরিস জনসন। কিন্তু আদালতের রায়ে ফের সংসদ অধিবেশন শুরু হলে দেশে ফিরেই বিমানবন্দর থেকে সংসদে গিয়ে এমন কথা বলে তিনি।
ব্রেক্সিট ইস্যুতে সমঝোতায় পৌঁছাতে ব্যর্থ হয়ে গত মে মাসে পদত্যাগের কথা জানান যুক্তরাজ্যের তৎকালীন প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে। তিনি সরে দাঁড়ানোর পর ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী নির্বাচিত হন কট্টর ব্রেক্সিটপন্থী বরিস জনসন। নির্বাচিত হওয়ার পর আগামী ৩১ অক্টোবর নির্ধারিত সময়ের মধ্যে ব্রেক্সিট বাস্তবায়নের ঘোষণা দিয়েছেন তিনি। প্রয়োজনে চুক্তিহীন ব্রেক্সিট বাস্তবায়নেরও ইঙ্গিত দেন তিনি।




Loading...

No comments

Powered by Blogger.