রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংকের সামনে ধর্নাতে বসলেন বিধানসভা বিধায়ক

       রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংকের সামনে ধর্নাতে বসলেন বিধানসভা বিধায়ক

রাজা সেখ, নদীয়াঃ  নদীয়ার শান্তিপুরে একটি রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাংকের সামনে ধর্নাতে বসলেন শান্তিবিধানসভার বিধায়ক। অভিযোগ বেশ কয়েক বছর আগে শান্তিপুরের সুত্রাগড় অঞ্চলে একটি sbi-kiosk শাখা থেকে প্রায় পাঁচ শতাধিক গ্রাহকের টাকা প্রতারিত করে পালিয়ে যান ওই ব্যাঙ্কের ব্রাঞ্চ ম্যানেজার তৎকালীন সময়ে অসুবিধার সম্মুখীন হলে শান্তিপুর ঐ সমস্ত ব্যক্তিদের ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্ট কপি জমা দিতে বলেন এবং তার একটি তালিকা তৈরি হয় এবং বেশ কিছু মানুষের টাকা ফেরত দেওয়া হয় বলেও জানা যায়। এবং বাকীদের দ্বিতীয় স্টেপ এ দেওয়ার কথা জানান। কিন্তু বেশ কিছু দিন গড়িয়ে গেলেও ওই সমস্ত প্রতারিত দের টাকা কবে দেওয়া হবে এ বিষয়ে আর জানানো হয়নি। এর পরে একাধিকবার প্রতারিত গ্রাহকদের টাকা ফেরানোর জন্য ব্যাংক ম্যানেজারের সাথে যোগাযোগ করা হলে কোন কর্ণপাত করেনি বলে জানান অভিযোগকারীরা এবং তাদের কে হুমকিও দেয়া হয় বলে জানান।
শান্তিপুর বিধায়ক অরিন্দম ভট্টাচার্য বলেন কেন্দ্র সরকার জিরো ব্যালান্স অ্যাকাউন্ট খুলে 15 লক্ষ টাকার কথা জানালে গরীব মানুষ এই সমস্ত অ্যাকাউন্ট খুলে এবং তাদের সঞ্চয় করা কিছু টাকা ওখানে জমান এরপরে নোট বন্দি সময় বাড়িতে থাকা জমানো সমস্ত টাকা ও একাউন্টে রাখেন এরপরে প্রতারিত হয় ওই সমস্ত গ্রাহকেরা। এরপরে ওই সমস্ত গ্রাহকদের নিয়ে বিধায়ক শান্তিপুর শাখা সহ রিজিওনাল ম্যানেজার সহ একাধিক ব্যক্তিকে জানান এবং তারা বিষয়টি চেপে দেওয়ার চেষ্টা করে বলে অভিযোগ করেন এবং অভিযোগ  জানানো পরও  বিষয়টি চেপে যেতে পারেননি বলে জানান বিধায়ক। বিধায়ক নাম না করে বলেন ওই ব্যাংকেরই এক কর্মী বলেন বিষয়টি সকলেরই জানা এবং আমাদের হাত বাধা ।  আমরা কিছু করতে পারবো না। এবং এর পরের বিধায়ক গত মাসের 27 তারিখ একটি ডেপুটেশন জমা দিয়ে ব্যাঙ্ক ম্যানেজার কে জানান বাকি প্রতারিতদের আগামী 7 দিনের মধ্যে টাকা ফেরত দিতে হবে । এর পরে টাকা ফেরত না দিলে আমাদের শান্তিপূর্ণ আন্দোলন ছাড়া আর কোন উপায় নেই। এও বলেন এক একটা ন্যাশনাল ব্যাংক ফ্রাদে পরিণত হয়েছে এই কেন্দ্রীয় সরকারের আমলে।
Bengali Movie Air Hostess

Loading...

No comments

Powered by Blogger.