নদীর উপর পাকা সেতুর কাজের সূচনা মন্ত্রী রবীন্দ্রনাথ ঘোষের


মালদাঃ নদীর এপারে কহে ছাড়িয়া নিঃশ্বাস, ওপারেতে সর্ব সুখ আমার বিশ্বাস। দুই পাড়ের মানুষের বিশ্বাসকে মর্যাদা দিয়ে কালিন্দ্রী নদীর উপর পাকা সেতুর কাজের সূচনা করলেন উত্তরবঙ্গ উন্নয়ন দপ্তরের মন্ত্রী রবীন্দ্রনাথ ঘোষ। সোমবার সকাল ১১টা নাগাদ,ফলক উন্মোচন করে কাজের সূচনা করেন তিনি। এছাড়া এই অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন ইংরেজবাজার বিধায়ক নিহার রঞ্জন ঘোষ, প্রাক্তন মন্ত্রী কৃষ্ণেন্দু নারায়ণ চৌধুরী, সাবিত্রী মিত্র, জেলাশাসক কৌশিক ভট্টাচার্য, ইংরেজ বাজার পঞ্চায়েত সমিতির সভাপতি লিপিকা বর্মন ঘোষ সহ অন্যান্য অতিথিরা। সেতু নির্মাণ হলে উপকৃত হবে দুই পারের কয়েক হাজার মানুষ। বলে মনে করেন স্থানীয়রা। স্বাধীনতার পর থেকেই দুর্দশার জীবন ছিল দুই পাড়ের মানুষের। দুই পাড়ের সংযোগকারী সেতু নির্মাণের জন্য স্থানীয় মানুষেরা ধন্যবাদ জানিয়েছে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে।  প্রায় ১১১ মিটারের এই সেতু তৈরিতে খরচ হবে প্রায় ১০ কোটি টাকা। দীর্ঘদিন ধরেই পাকা সেতু নির্মাণের দাবি তুলেছিলেন স্থানীয় বাসিন্দারা। সেতু না থাকার কারণে দুই পাড়ের মানুষ বাঁশের সেতু দিয়েই জীবনের ঝুঁকি নিয়ে যাতায়াত করতেন। এর আগেও দুবার শিলান্যাস হলেও বাস্তবায়িত হয়নি। স্থানীয় বাসিন্দারা জানিয়েছেন, এবার কাজের সূচনা হয়েছে। ফলে আশার আলো দেখছেন তারা।  উত্তরবঙ্গ উন্নয়ন দপ্তরের মন্ত্রী জানিয়েছেন, দুই পাড়ের মানুষের করুণ অবস্থা ছিল। তার জন্য মেয়েদের বিয়ে করতে যেতেন না কেউ।  প্রসব যন্ত্রণা নিয়ে হাসপাতাল যাওয়ার আগেই রাস্তাতেই অনেক সময় প্রসূতির প্রসব হয়ে যেত।  মন্ত্রী আরও জানিয়েছেন, এই সেতুর কারণে মেলবন্ধন হবে দুই পাড়ের মানুষে মধ্যে। তিনি বলেন, সেতু হওয়ার পর যে বাড়িতে প্রথম বিয়ে হবে সেই বাড়িতে তিনি নিমন্ত্রন খেতে যাবেন। নিমন্ত্রন না দিলে তিনি জানতে পারলেই বিনা নিমন্ত্রণে সেখানেই পৌঁছাবেন। দুই পাড়ের মানুষ দুহাত ভরে আশীর্বাদ জানিয়েছেন বর্তমান মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে। 
Bengali Movie Air Hostess

Loading...

No comments

Powered by Blogger.