তোলাবাজির প্রতিবাদ করায় আক্রান্ত ব্যাবসায়িরা

নিজস্ব প্রতিনিধি, হাওড়া :তোলাবাজির প্রতিবাদ করায় হাওড়ার সব্জি বাজারের ব্যবসায়ীদের মারধোর করল দুষ্কৃতিরা। অভিযোগ এর পরের দিনই হাওড়ার ১৪ নং ওয়ার্ড তৃণমূল পার্টি অফিসে ভাঙচুর করল দুষ্কৃতিরা। এর পাশাপাশি মারধোর করা হয় দলীয় কর্মীদের।


হাওড়া স্টেশন চত্বরে প্রায় ২ বিঘার ওপর সবজি বাজার। এখানে ৮০০ থেকে ১ হাজার সবজি বিক্রেতা সবজি বিক্রি করতে আসে। হাওড়া সবজি খুচরো বিক্রেতা কল্যান সমিতির সম্পাদক কৃষ্ণা সিংয়ের অভিযোগ এই বাজারে দীর্ঘদিন ধরে দুষ্কৃতিরা সবজি বিক্রেতাদের কাছ থেকে তোলা তুলছে বলে অভিযোগ করেন। বিক্রেতার অবস্থা অনুযায়ী তাঁদের কাছ থেকে প্রতিদিন ১০০ থেকে ৩০০ টাকা তুলে থাকে। এই ঘটনার প্রতিবাদ করেছিলেন তিনি। সেই কারনে শনিবার সকাল প্রায় সাড়ে ১১টা নাগাদ বেশ কয়েকজন তাঁদের অফিসে আসে। সেখানে তাদেরকে ফেলে ব্যাপক মারধোর করে। তাঁদের টাকাপয়সা ছিনিয়ে নেয় বলেও অভিযোগ করেন কৃষ্ণাবাবু। প্রায় ১ ঘন্টা ধরে তাণ্ডব চালানোর পর তাঁরা বেড়িয়ে যায়। এই ঘটনার পর তাঁরা হাওড়ার হাওড়ার গোলাবাড়ি থানায় অভিযোগ করা হয়। হাওড়া ১৪ নং ওয়ার্ড প্রেসিডেন্ট রাজেশ সোনকারের অভিযোগ পুলিশ মনোজ সাউ ওরফে চুন্নু নামে একজনকে গ্রেফতার করলেও কয়েক ঘন্টা পর তাকে ছেড়ে দেয়।
রাজেশ সোনকার জানিয়েছেন, এই ঘটনার পর রবিবারেও তাণ্ডব চালায় দুষ্কৃতিরা। তিনি জানিয়েছেন এদিন রাত প্রায় ৯টা নাগাদ ১৪ নং ওয়ার্ড তৃণমূল পার্টি অফিস অফিসে তাঁদের দলীয় মিটিং হচ্ছিল। তখনই বেশ কয়েকিজন দুষ্কৃতি আসে সেখানে। সেখানে এসে তারা ভাঙচুর চালায়। মারধোর করে দলীয় কর্মীদের। দলীয় মহিলা কর্মীরাও বাদ যায়নি দুষ্কৃতিদের নিগ্রহের হাত থেকে। এই ঘটনায় আতঙ্কিত হয়ে পড়েছেন এলাকার বাসিন্দারা।
এই ঘটনায় এলাকার প্রাক্তন ওয়ার্ড সভাপতি সন্তোষ সাহানির বিরুদ্ধে অভিযোগের আঙুল উঠলেও তা তিনি অস্বীকার করেন। তিনি বলেন এই অভিযোগ মিথ্যা। প্রায় এক বছর তিনি অফিসে ঢোকেননি। পার্টি অফিস তারা দখল করে নিচ্ছে। সেই কাজে বাধা দিছেন তিনি। তবে তাদের সঙ্গে হাতাহাতি হয়েছে বলে স্বীকার করে নেন তিনি।
এদিন পার্টি অফিস ভাঙা প্রসঙ্গে মধ্য হাওড়া তৃণমূল সভাপতি তথা মন্ত্রী অরূপ রায় বলেছেন, “ বিষয়টি তিনি জানতে পেরেছেন। বিষয়টি তিনি দেখছেন। যদি দলীয় কর্মী এই ঘটনার সঙ্গে যুক্ত থাকেন তার বিরুদ্ধে দল কঠোর ব্যবস্থা নেবে।
Bengali Movie Air Hostess

Loading...

No comments

Powered by Blogger.