অধ্যাপক ও উপাচার্যদের অবসরের বয়সসীমা বাড়ানো হবে: মুখ্যমন্ত্রী

ছবিঃ বিভাস লোধ 

মুখ্যমন্ত্রী বলেন, "আমরা ইতিমধ্যেই একটা সিদ্ধান্ত নিতে চলেছি। আমি পার্থদাকে (শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়) বলব, আমাদের অধ্যাপকদের অবসরের বয়স ৬২ থেকে বাড়িয়ে ৬৫ করা হবে। উপাচার্যদের অবসরের বয়স ৭০ করা হবে। আমি মনে করি, এই সময়টা তাঁরা অনেক ম্যাচিউরিটি নিয়ে ভালোভাবে কাজ করতে পারবেন।"অধ্যাপক ও উপাচার্যরা যাতে যথেষ্ট অভিজ্ঞতা ও পরিণতিবোধ নিয়ে কাজ করতে পারেন, সেজন্যই তাঁদের অবসরের বয়সসীমা বাড়ানো হয়েছে বলে জানান মুখ্যমন্ত্রী। তিনি বলেন, "আজকালকার বাচ্চারা খুব ম্যাচিওরড। ১৮-১৯ বছর বয়সে আমাদের ছেলেমেয়েরা যথেষ্ট ম্যাচিওরড হয়ে যায়। তারা এখন যে পরিকাঠামোগত সুবিধা পায়, আমাদের সময় সেগুলো ছিল না। তবে এটাও ঠিক, আগেকার দিনে আমরা বলতাম ৫০ বছর পেরিয়ে গেলে ম্যাচিউরিটি আসে। একটা মেশিন দিয়ে কাজ করানো আর ভাবনা-চিন্তা করে কাজ করার মধ্যে তফাৎ আছে। ৬০ বছর বয়সে একজনের কাজ ফুরিয়ে গেল, এটা আমি মানতে রাজি নই। ৬০ বছরে জীবনটা ফুরিয়ে গেলে আগামী ২৫ বছর সে কী করবে?" 

                                                 ছবিঃ বিভাস লোধ
রাজ্যে যুব প্রজন্মের চাকরির কোনও অভাব হবে না বলে আজ দাবি করেছেন মুখ্যমন্ত্রী। মুখ্যমন্ত্রী বলেন, "ইয়ংদের কোনও সমস্যা নেই। অনেক নতুন সুবিধা হচ্ছে। গত সাত বছরে ২৩টা নতুন বিশ্ববিদ্যালয় হয়েছে। আরও ১১টা নতুন বিশ্ববিদ্যালয় তৈরি হতে চলেছে। কয়েক হাজার নতুন স্কুল তৈরি হয়েছে। আমাদের এখানে চাকরির কোনও অভাব হবে বলে আমি মনে করি না। আমরা গর্বিত আমরা ৪০ শতাংশ বেকারের সংখ্যা কমিয়ে দিয়েছি। আগামীদিনে আমরা আরও পরিকাঠামো তৈরি করব। পরিকাঠামো যত তৈরি হবে তত কর্মসংস্থান বাড়বে।"

                                              ছবিঃ বিভাস লোধ 
Bengali Movie Air Hostess

Loading...

No comments

Powered by Blogger.