বনধ কেন্দ্রে ধুন্ধুমার জামুরিয়া!




জয়ন্ত সাহা, আসানসোলঃ উত্তেজনা বাস ভাঙ্গচুর আসানসোল জামুড়িয়ায়।মঙ্গলবার ১০ টি কেন্দ্রীয় ট্রেড ইউনিয়ন ও বামেদের ডাকা ৪৮ ঘন্টার সাধারণ ধর্মঘটে বনধ সমর্থক ও বনধ বিরোধীদের বচসা ও হাতাহাতিকে কেন্দ্র করে পরিস্থিতি উত্তেজনা প্রবন হয়ে ওঠে ৷ এদিন সকাল ৭টাতেই আসানসোল সিটিবাস স্ট্যান্ডে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে ৷ বনধ সমর্থকরা বাস আটকাতে গেলে বাধা তৃণমূলের সমর্থকেরা। ঘটনার জেরে বনধ সমর্থকদের সংঘবদ্ধ তাড়া খেয়ে প্রাথমিক পর্যায়ে তৃণমূল সমর্থকদের পালাতে দেখা যায় । পরে পুলিশ বনধ সমর্থকদের সরিয়ে দেয়। এর পরেই আসানসোলের BNR মোড়ে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। তৃণমূল ও বনধ সমর্থকদের মধ্যে হাতাহাতির ঘটনা ঘটে এখানেও। পরে বিরাট পুলিস বাহিনী গিয়ে দুই পক্ষকে সরিয়ে দেয়। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনতে ঘটনাস্থলে বিরাট পুলিশ বাহিনী মোতায়েন করে রাখা হয় । তবে বেলা বাড়ার সাথে সাথে যান চলাচল স্বাভাবিক হতে দেখা যায় ৷


অন্যদিকে ডিসেরগড়ে ইসিএলের সদর দফতরে বনধ সমর্থক শ্রমিক সংগঠনের সমর্থকদেরা বনধের সমর্থনে স্লোগান দিতে দেখা যায় ৷ অন্যদিকে জামুড়িয়ার মণ্ডলপুর এলাকায় বনধ সমর্থকেরা সকালে পথ অবরোধ করে ৷ একই সাথে কলকাতাগামী সরকারি বাসে ভাঙচুর চালায় ৷ ঘটনাকে কেন্দ্র করে এলাকায় উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে ৷ পরে ঘটনাস্থলে পুলিশ পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে ৷ একই সাথে রানিগঞ্জে প্রাক্তন সাংসদ ও বাম নেতা বংশগোপাল চৌধুরীর নেতৃত্বে বনধ সমর্থকদের পথ অবরোধ করতে দেখা যায় ৷ তবে এখানেও পুলিশকে রাস্তায় নেমে পরিস্থিতি স্বাভাবিক করতে দেখা যায় ৷ সব মিলিয়ে শিল্পাঞ্চলে সাধারণ ধর্মঘটের প্রথমদিনে জন জীবনে আংশিক প্রভাব পড়তে দেখা যায় ৷
Bengali Movie Air Hostess

Loading...

No comments

Powered by Blogger.