দুষ্কৃতীদের গুলিতে মৃত তৃণমূল কর্মী




নিজস্ব সংবাদদাতা, ক্যানিংঃ দুষ্কৃতীদের গুলিতে মৃত এক তৃণমূল সমর্থক। রবিবার রাতে ঘটনাটি ঘটেছে ক্যানিংয়ের খেজুরতলা মোড়ের কাছে।পুলিশ জানিয়েছে, মৃতের নাম নাজিরুদ্দিন সরদার ওরফে কালো (২৮)।তার বাড়ি ক্যানিংয়ের হাটপুকুরিয়ার তেঁতুলবেড়িয়া এলাকায়।এবিষয়ে কেউ কোনো অভিযোগ করেনি পুরো বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।কাউকে গ্রেপ্তার করা যায়নি।


পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রের খবর,নাজিরুদ্দিন সর্দারের বিরুদ্ধে ক্যানিং থানায় একাধিক খুন,ছিনতাই সহ বিভিন্ন অভিযোগ রয়েছে। ২০১৪ সালে ক্যানিংয়ের ঢোষাহাটে মনিরুল সর্দার খুনের ঘটনায় অন্যতম অভিযুক্ত ছিল সে। ওই খুনের ঘটনায় সে বেশ কিছুদিন জেলও খাটে।পরে সে জামিনে মুক্তি পায়।এর আগে ২০০৮ সালে ক্যানিংয়ের ভলেয়াতে একটি খুনের ঘটনায় অভিযুক্ত ছিল সে।এদিন রাতে নাজিরুদ্দিন কলকাতার মেটিয়াবুরুজ থেকে কাজ সেরে বাড়ি ফিরছিল। বেতবেড়িয়া স্টেশনে নেমে একটি মোটর বাইকে নাজিরুদ্দিন সহ তিনজন বাড়ি যাচ্ছিল।বাইকের মাঝখানে বসে ছিল সে।পেছনে বসে ছিল তার দাদা সাহাবুদ্দিন সর্দার।অভিযোগ ৭-৮ জন দুষ্কৃতী তাদের পেছন থেকে ধাওয়া করে খেজুরতলা মোড়ের কাছে ধরে ফেলে। লাথি মেরে তাদের বাইক থেকে ফেলে দিয়ে মারধোর শুরু করে।প্রাণ ভয়ে যখন নাজিরুদ্দিন পালাচ্ছিল তখন দুষ্কৃতীরা তাঁকে লক্ষ্য করে গুলি করে।একটি গুলি তার ডান পায়ে লাগলে সে মাটিতে পড়ে যায়।তারপর তাকে লক্ষ্য করে আরো দুটি গুলি চালায়। একটি গুলি তার পেট ফুঁড়ে বেরিয়ে যায়।পরে তার দাদা ও স্থানীয় লোকজন তাকে উদ্ধার করে ক্যানিং মহকুমা হাসপাতালে নিয়ে আসলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। এই খবর শুনে রাতেই ক্যানিং মহকুমা হাসপাতালে আসেন ক্যানিং ১ পঞ্চায়েত সমিতির প্রাক্তন সভাপতি পরেশ রাম দাস।
পরেশ রাম দাস বলেন, নাজিরুদ্দিন আমাদের দলের একজন সক্রিয় কর্মী। এটা অত্যন্ত দুঃখজনক একটা ঘটনা। তাকে যারা খুন করেছে তাদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি হোক।পুলিশ নিরপেক্ষ তদন্ত করে দোষীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিক।
তার দাদা সাহাবুদ্দিন সর্দার বলেন,আমরা তৃনমূল করি। আমাদের কোনো শত্রু ছিল না।কেন ভাইকে খুন করা হল পুলিশ তা তদন্ত করে দেখুক। তবে তার ভাইয়ের বিরুদ্ধে একাধিক খুনের অভিযোগের বিষয়টি নিয়ে তিনি বলেন, কেউ কারো নামে মিথ্যা অভিযোগ করতেই পারে। তাকে ফাঁসানোর জন্যই এসব করা হয়েছে।
তবে প্রাথমিক তদন্তে পুলিশের অনুমান পুরানো কোন শত্রুতার জেরেই নাজিরুদ্দিনকে খুন করা হয়েছে।
Loading...
Powered by Blogger.