অপরিষ্কার মাইথন ড্যাম্প




আসানসোল:সালানপুর পঞ্চায়েতের অন্তর্গত পর্যটন কেন্দ্র মাইথনড্যাম্প । যা এই শীতের মরশুমে পিকনিক করতে দূরদূরান্ত থেকে মানুষ এই মাইথনে আসে । এই মাইথন জলাধারে চুটিয়ে জমে উঠে পিকনিক । এই পিকনিকে আসতে হলে সালানপুর পঞ্চায়েত থেকে টোল আদায়ের জন্য বসানো হয় টোলটেক্স । কিন্তু প্রতিবার পর্যটকরা সমস্যাতে পড়ে অপরিষ্কার জায়গার কারণে। তবে সালানপুর পঞ্চায়েত থেকে বাথরুমের ও একটি টিউবকলের ব্যাবস্থা করা হয় । তৈরী হচ্ছে একটি ছোট পার্ক ।সাজানো হচ্ছে মাইথন থার্ড ডাই পিকনিক স্থলকে । কিন্তু সমস্যা টোল নেওয়া চালু হয়েছে দু একটি করে বাস আসছে ।তাদের কাছে টোল আদায় করতে যাচ্ছে ।কিন্তু সেই টোল শ্লিপে তারিখ বসানো থাকছে না শুধু থাকছে বাসের নাম্বার ।এছাড়া পরিষ্কার করা হচ্ছে না । যেখানে শোলারপাতা বন্ধ সেখানে পড়ে থাকা শোলার পাতা দেখা গেলো । নৌকা চালকরা জানান যে এই বার তারা নৌকা সাজানো ও রঙ করার কাজ শুরু হয়েছে কিন্তু মাইথনে জল কম থাকাতে এই বার নৌকাতে মানুষের চাপার সংখ্যা কমে যাবে । সারা বছরে এই সময় ইনকামের সিজীন । এবং আরো নৌকা চালকরা যানান যে টোলটেক্স আদায় করে কিন্তু পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতা বজায় রাখে না টোলআদায় কর্ত্রী পক্ষরা । যার ফলে পর্যটক আসাকমে গেছে । এর ফলে চিন্তার ভাঁজ পড়েছে নৌকাচালকদের মধ্যে । এছাড়া এই বাথরুমে ভীড় হলে আরোপরযাপ্ত বাথরুম চাই বিদ্যুত এর ব্যবস্থা করা হলে আরো ভালো হয় । এ কী সাথে পর্যটক একটিবাস পিকনিক করতে আসা তিনি যানান যে পিকনীকস্পটে ঢোকাআগে গেটের কাছে টাকা নিচ্ছে ৫০/১00 এবং স্পটে পারকিঙ করার জন্য টাকা নিচ্ছে সালানপুর পন্চায়েত ছাপা রশীদ মিলছে ।কিন্তু স্পটে ঢোকার আগে গেটে যে টাকা নেওয়া হচ্ছে তাতে কিন্তু কোন রশীদ মিলছে না ।পর্যটক রা যানান আগের থেকে উন্নয়ন হয়েছে সাজানো হচ্ছে । তবে মহিলা দের জন্য বাথরুমের আরো ব্যাবস্থা করলে ভালো হবে ।পানীয় জলের অসুবিধা যেখানে টাকা দিয়ে জল কিনতে হচ্ছে ।এখন দেখার পিকনিকের শুরুর মুখে শোলারথালা পাতা পিকনিক স্থলে ঢুকছে ।পরীষ্কার পরীছন্নতা কী হবে ।সেটাই দেখার।
Bengali Movie Air Hostess

Loading...

No comments

Powered by Blogger.