৩ পা ও ৪ হাত নিয়ে বিরল জোড়া শিশু

৩ পা ও ৪ হাত নিয়ে বিরল জোড়া শিশু

ছয় বছর আগে ইন্দোনেশিয়ায় ৩ পা ও ৪ হাত বিশিষ্ট জোড়ালাগা যমজ শিশুর জন্ম হয়েছিল। সাধারণত এ ধরণের শিশুদের বেশিরভাগ জন্মের পরপরই মারা যায়। তবে তারা একসঙ্গে ৬ বছর ধরে বেঁচে আছে; যা বিরল।

গত ১২ মে আমেরিকান জার্নাল অব কেস রিপোর্ট-এ এই তথ্য উঠে আসে। জার্নালটির বরাতে বৃৃহস্পতিবার (১৬ মে) এক প্রতিবেদনে ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি এ তথ্য জানিয়েছে। প্রতিবেদনে বলা হয়, এ ধরনের জোড়ালাগা যমজ শিশুদের ’স্পাইডার টুইন্স’ বলা হয়। ‘স্পাইডার টুইন্স’ এর বৈজ্ঞানিক নাম ইস্কিওপাগাস ট্রিপাস। বিশ্বে এ ধরনের বিরল শিশু ২০ লাখে একটি জন্ম নেয়। ৬০ শতাংশেরও বেশি শিশু জন্মের পর মারা যায় বা যমজদের মধ্যে একটি শিশু মৃত অবস্থায় জন্মায়। তবে ইন্দোনেশিয়ার ‘স্পাইডার টুইন্স’ একসঙ্গে ৬ বছর ধরে বেঁচে আছে; যা বিরল! ইন্দোনেশিয়ার এই শিশুদের জন্মের তিন বছর পর চিকিৎসকরা অস্ত্রোপচারের মাধ্যমে তাদের তৃতীয় পা কেটে ফেলে। যাতে তারা অন্তত আলাদাভাবে সোজা হয়ে বসতে পারে। এর আগে তারা বসতেও পারতো না। 

 চিকিৎসকরা জানিয়েছে, অস্ত্রোপচারের মাধ্যমে তাদের আর আলাদা করা সম্ভব না। ২০১৮ সালে এই যমজ শিশুর জন্ম হলে তাদের তথ্য মার্কিন জার্নাল ‘আমেরিকান জার্মাল অব কেস রিপোর্ট’এ রেকর্ড করা হয়। চলতি সপ্তাহে প্রতিবেদনটি প্রকাশ করা হয়। জার্নালটিতে বলা হয়েছে, যমজ জোড়া শিশুদের সাধারণত উপরের অংশ জোড়া থাকে। তবে শরীরের নিচের অংশ জোড়া লাগানো যমজ শিশু খুবই বিরল।

Offbeat World