১৮টার মধ্যে ১২টা আসন পাবে বিজেপি!

১৮টার মধ্যে ১২টা আসন পাবে বিজেপি!

লোকসভা নির্বাচন চলাকালীন নিয়োগ দুর্নীতিতে ফের একবার পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের গ্রেফতারি দাবি করলেন রাজ্য বিজেপি সভাপতি সুকান্ত মজুমদার। বৃহস্পতিবার দুপুরে কলকাতায় দলীয় দফতরে এক সাংবাদিক বৈঠকে প্রশ্নের উত্তরে এই দাবি করেন তিনি। একই সঙ্গে ইন্ডি জোট নিয়ে মমতা বুধবারের অবস্থানকে কটাক্ষ করেন তিনি।

এদিন সুকান্তবাবু বলেন, ‘মুখ্যমন্ত্রী যতই বলুন যারা টাকা দিয়ে চাকরি পেয়েছেন সেই চাকরি যাবে। যারা যোগ্য তাদের চাকরি থাকবে। কিন্তু কার আমলে চাকরি গেছে সেটা দেখা জরুরি। এই মুখ্যমন্ত্রীর জেলে যাওয়া উচিত। যদি উনি বাইরে থাকেন তাহলে ভারতের আইন ও বিচার ব্যবস্থার অপমান।

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ইন্ডি জোটকে বাইরে থেকে সমর্থন করার ঘোষণাকে কটাক্ষ করে সুকান্তবাবু বলেন, ‘মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের অবস্থা হল গাঁয়ে মানে না আপনি মোড়ল। ইন্ডির পিন্ডি আগেই চটকে গেছে। বিজেপি ৪০০ এর বেশি আসন জিতে গেছে তো।’

এদিন সুকান্তবাবু দাবি করেন, রাজ্যের যে ১৮টি আসনে ইতিমধ্যে ভোটগ্রহণ হয়েছে তার মধ্যে ১২টি পাবে বিজেপি। ৬টি আসন বিজেপি কেন পাবে না তা তিনি পরে জানাবেন বলে জানিয়েছেন সুকান্তবাবু।

সন্দেশখালি নিয়েও তৃণমূলকে আক্রমণ করেন তিনি। বলেন, ‘স্টিং অপারেশনের ভিডিয়ো প্রকাশ করে বারবার সন্দেশখালির ঘটনা মিথ্যা প্রমাণের চেষ্টা করছিল তৃণমূল। গতকালের একটি ভিডিয়ো প্রমাণ করে দিয়েছে আসলে সেখানে কী ঘটেছে। সেই ভিডিয়োয় তৃণমূলের পঞ্চায়েত সমিতির সদস্য ও তাঁর স্বামী স্বীকার করেছে সন্দেশখালির ঘটনা সত্যি। গতকাল রাতে এক মহিলাকে তুলে নিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে এলাকার তৃণমূল নেতা দিলীপ মল্লিক। বিজেপি কর্মীদের তরফে আজ এলাকায় যাওয়ার চেষ্টা হলে পুলিশ আটকায়। তৃণমূল নেতাদের বলবো এই ফেক ভিডিয়োর খেলা বন্ধ করুন । সন্দেশখালির ঘটনা যে সত্যি সেটা স্বীকার করুন ।

সন্দেশখালিতে পুলিশ তৃণমূল আঁতাতের অভিযোগ করে তিনি বলেন, ‘সন্দেশখালিতে পুলিশকে ব্যবহার করে গোটা ঘটনাকে ঢেকে দেওয়ার চেষ্টা করা হচ্ছে। তৃণমূল কংগ্রেস পুলিশকে দিয়ে ভয় দেখিয়ে ঘটনা উল্টে দেওয়ার চেষ্টা করছে। তৃণমূল কংগ্রেস নির্বাচনী বৈতরণী পার করার জন্য সন্দেশখালির ঘটনা মিথ্যে প্রমাণ করার চেষ্টা করছে।

loksabha Election 2024 Politics West Bengal