স্ক্রুটিনির পরে উচ্চমাধ্যমিকের মেধাতালিকায় নরেন্দ্রপুরের আরও ৪ জন

স্ক্রুটিনির পরে উচ্চমাধ্যমিকের মেধাতালিকায় নরেন্দ্রপুরের আরও ৪ জন

এমনিতেই দুর্দান্ত রেজাল্ট হয়েছিল। স্ক্রুটিনির রেজাল্টের পরে উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার মেধাতালিকায় জায়গা করে নিলেন নরেন্দ্রপুর রামকৃষ্ণ মিশনের আরও চারজন পড়ুয়া। প্রাথমিকভাবে উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষার মেধাতালিকায় ছয়জন ছিলেন। স্ক্রুনিটির পরে মেধাতালিকায় মোট ১০ জন জায়গা করে নিলেন। একজন দ্বিতীয় হয়েছেন। ষষ্ঠ স্থান অধিকার করেছেন একজন। অষ্টম স্থানে উঠে এসেছেন এক ছাত্র। নবম স্থানে দু’জনই আছেন। দশম স্থান অধিকার করেছেন নরেন্দ্রপুর রামকৃষ্ণ মিশনের মোট পাঁচজন পড়ুয়া। প্রাথমিকভাবে নরেন্দ্রপুরের দু’জন দশম স্থানে ছিলেন। স্ক্রুটিনির পরে নরেন্দ্রপুরের আরও তিনজন দশম স্থানে উঠে এসেছেন।

স্ক্রুটিনির পরে নরেন্দ্রপুর রামকৃষ্ণ মিশনের সংশোধিত ফলাফল (মেধাতালিকা)

১) দ্বিতীয় হয়েছেন সৌম্যদীপ সাহা। তাঁর প্রাপ্ত নম্বর ৪৯৫ (৯৯ শতাংশ)। উচ্চমাধ্যমিকে অর্থনীতি, স্ট্যাটিস্টিক্স, অঙ্ক এবং কম্পিউটার সায়েন্স ছিল। 

২) ষষ্ঠ স্থানেই আছেন নিলয় চট্টোপাধ্যায়। তাঁর প্রাপ্ত নম্বর ৪৯১ (৯৮.২ শতাংশ)। উচ্চমাধ্যমিক স্তরে তাঁর অর্থনীতি, স্ট্যাটিস্টিক্স, অঙ্ক এবং কম্পিউটার সায়েন্স ছিল।

৩) স্ক্রুটিনির রেজাল্টের পরে অষ্টম স্থানে উঠে এসেছেন সাগ্নিক চক্রবর্তী। তাঁর নম্বর বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৪৮৯ (৯৭.৮ শতাংশ)। তাঁর ফিজিক্স, কেমিস্ট্রি, অঙ্ক এবং স্ট্যাটিস্টিক্স ছিল।

৪) নবম স্থানে আছেন অদ্বিতীয় বন্দ্যোপাধ্যায়। তাঁর প্রাপ্ত নম্বর হল ৪৮৮ (৯৭.৬ শতাংশ)। তাঁর অর্থনীতি, ভূগোল, রাষ্ট্রবিজ্ঞান এবং অঙ্ক ছিল।

৫) অদ্বিতীয়ের মতো নবম স্থানে আছেন অর্ক সাহা। অর্থাৎ ৪৮৮ নম্বর পেয়েছেন। যা শতাংশের বিচারের ৯৭.৬ শতাংশ। তাঁর ফিজিক্স, কেমিস্ট্রি, অঙ্ক এবং বায়োলজি ছিল।

৬) ৪৮৭ নম্বর পেয়ে প্রথম থেকেই উচ্চমাধ্যমিকের মেধাতালিকায় দশ নম্বরে আছেন সোহম মুখোপাধ্যায়। তাঁর প্রাপ্ত নম্বর ৪৮৭ (৯৭.৪ শতাংশ)। ফিজিক্স, কেমিস্ট্রি, অঙ্ক এবং স্ট্যাটিস্টিক্স ছিল তাঁর।

৭) উচ্চমাধ্যমিকে দশম হয়েছেন শুভজিৎ ঘোষ। তাঁর প্রাপ্ত নম্বর ৪৮৭ (৯৭.৪ শতাংশ)। উচ্চমাধ্যমিক স্তরে ভূগোল, ইতিহাস, রাষ্ট্রবিজ্ঞান এবং অর্থনীতি ছিল।

৮) প্রাথমিকভাবে উচ্চমাধ্যমিকের মেধাতালিকায় ছিলেন না অদ্রিজ দলুই। তবে স্ক্রুনিটির পরে দশম স্থানে উঠে এসেছেন। তাঁর প্রাপ্ত নম্বর ৪৮৭ (৯৭.৪ শতাংশ)। ফিজিক্স, কেমিস্ট্রি, অঙ্ক এবং বায়োলজি ছিল।

৯) স্ক্রুটিনির পরে প্রদোষ চট্টোপাধ্যায়ের নম্বর বেড়ে ৪৮৭ (৯৭.৪ শতাংশ) হয়েছে। ফলে উচ্চমাধ্যমিকের মেধাতালিকায় জায়গা করে নিয়েছেন। দশম হয়েছেন। উচ্চমাধ্যমিকে অর্থনীতি, স্ট্যাটিস্টিক্স, অঙ্ক এবং কম্পিউটার সায়েন্স ছিল। 

১০) স্ক্রুটিনির পরে উচ্চমাধ্যমিকের মেধাতালিকায় জায়গা করে নিয়েছেন নরেন্দ্রপুর রামকৃষ্ণ মিশনের আরও এক পড়ুয়া শাশ্বত মণ্ডল। তাঁর প্রাপ্ত নম্বর ৪৮৭ (৯৭.৪ শতাংশ)। ফিজিক্স, কেমিস্ট্রি, অঙ্ক এবং স্ট্যাটিস্টিক্স ছিল।

West Bengal