‘স্ক্যাম ১৯৯২ ও ২০০৩’-এর পর ফের নতুন কেলেঙ্কারি নিয়ে আসছেন হনসল মেহতা

‘স্ক্যাম ১৯৯২ ও ২০০৩’-এর পর ফের নতুন কেলেঙ্কারি নিয়ে আসছেন হনসল মেহতা

স্ক্যাম ১৯৯২ এবং স্ক্যাম ২০০৩ এর পর ফের একবার নতুন স্ক্যাম নিয়ে ফিরছেন হনসল মেহতা। হ্যাঁ ঠিকই ধরেছেন, ফিরছে হনসল মেহতা স্ক্যাম (Hansal Mehta Scam) সিরিজের তৃতীয় সিজন। এবার আসছে স্ক্যাম ২০১০: দ্য সুব্রত রয় (Scam 2010: The Subrata Roy Saga) সাগা। সোশ্যাল মিডিয়ায় একটা টিজার ভিডিয়ো শেয়ার করে শোয়ের কথা ঘোষণা করেছেন পরিচালক নিজেই।

হনসল নেহতা লেখেন, ‘Sc3m ফিরে এসেছে! স্ক্যাম ২০১০: সুব্রত রায় সাগা, শীঘ্রই Scam2010 আসছে SonyLIV-এ ’। প্রসঙ্গত সুব্রত রায় ছিলেন সাহারা গ্রুপ অফ বিজনেসের প্রতিষ্ঠাতা। পরে বিনিয়োগকারীদের সঙ্গে প্রতারণার অভিযোগে ওই ব্যবসায়ীকে গ্রেপ্তার করা হয়। ১০,০০০ কোটি বকেয়া টাকা ফেরত না দেওয়ার অভিযোগে ২০১৪ সালে তাঁকে জেলে পাঠানো হয়। সুব্রত রায় ২ বছরেরও বেশি সময় জেলে ছিলেন। ২০১৬ সালে তিনি প্যারোলে ছাড়া পান। যদিও সেবি সুপ্রিম কোর্টকে সুব্রত রায়ের প্যারোল বাতিল করে তাঁকে আবাওর জেলে পাঠানোর কথা বলেছিল। সুব্রত রায় ২০১৩ সালে মারা যান, তখন তাঁর বয়স ছিল ৭৫ বছর।

প্রসঙ্গত, এই সুব্রত রায়কে নিয়েই আসবে স্ক্যাম ফ্র্যাঞ্চাইজির তৃতীয় সিজনের গল্প। স্ক্যাম ১৯৯২: দ্য হর্ষদ মেহতার গল্প। যেটি কিনা ২০২০ সালে সবচেয়ে বড় হিট সিরিজগুলির মধ্যে একটা ছিল। যেখানে কেন্দ্রীয় চরিত্রে অভিনয় করেন প্রতীক গান্ধী। এরপর স্ক্যাম ২০০৩ দ্য তেলগি স্টোরি -তে ছিল আব্দুল করিম তেলগির গল্প। যেখানে আবদুল করিম তেলগি-র চরিত্রে অভিনয় করেছেন থিয়েটার অভিনেতা গগন দেব রিয়ার। আর এবার আসছে সাহারাশ্রী সুব্রত রায়ের গল্প।

কে এই সুব্রত রায়?

সুব্রত রায় লখনউতে যাওয়ার আগে ১৯৭৮ সালে উত্তর প্রদেশের গোরক্ষপুরে মাত্র ২০০০ টাকা নিয়ে ব্যবসা শুরু করেন। বছরের পর বছর ধরে, তিনি অনেক চিট ফান্ড স্কিম তৈরি করে নিজের সাহারা সাম্রাজ্য তৈরি করেন। দরিদ্র্যসীমার নীচে বসবাসকারী লোকের থেকে লক্ষ লক্ষ টাকা সংগ্রহ করেছিলেন তিনি। যাঁদের কিনা ব্যাঙ্কিং সেক্টর সম্পর্কেই কোনও ধারণা ছিল না। এরপর বাজার নিয়ন্ত্রক সিকিউরিটি অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ ব্যুরো অফ ইন্ডিয়া (SEBI)১০১০ সালে তার বিরুদ্ধে মামলা করে। তখন দেখা যায় যে সুব্রত রায় তিন কোটি মানুষের কাছে ২৪,০০০ কোটি টাকা সংগ্রহ করেছেন।

২০০৪ সালে, টাইম ম্যাগাজিন স্ব-ঘোষিত সাহারাশ্রীকে ‘ভারতীয় রেলওয়ের উপর সবচেয়ে বড় নিয়োগকর্তা’ হিসাবে ঘোষণা করেন। মুলায়ম সিং যাদবের ঘনিষ্ঠ বন্ধু ছিলেন তিনি। ১৯৯০সালে সুব্রত রায় তাঁর ছেলের জমকালো বিয়ের আয়োজন করেন। তখন অমিতাভ বচ্চনেরও পছন্দের তালিকায় ছিলেন তিনি। তিনি ব্যবসায়িক, রাজনৈতিক এবং বিনোদন জগতে নিজের সংযোগের জন্য নিজেই গর্বিত ছিলেন।

এরপর সাহারা ইন্ডিয়া পরিবার হাজার হাজার কোটি টাকা বিনিয়োগকারীদের প্রতারণা করেছে এমন অভিযোগের পরে ২০১৪ সালে তাঁকে জেলে পাঠানো হয়। ২০২৩ সালের নভেম্বরে হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে মৃত্যু হয় সুব্রত রায়ের। এবার সেই সুব্রত রায়কে নিয়েই আসছে হনসল মেহতার এই সিরিজ।

India